চকরিয়ায় অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে স্কুল ছাত্রকে কুপিয়ে জখম

চকরিয়া অফিস
চকরিয়ায় প্রকাশ্যে এক ছেলেকে অন্যায়ভাবে মারধরের ঘটনায় প্রতিবাদ করতে গিয়ে খোর্শেদুল ইসলাম বাদল (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্রকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের শহর আলী বাপের পাড়ার রমিজ উদ্দিনের দোকানের সামনে চলাচল রাস্তায়  ১৫জুন সকাল ৮ ঘটিকার দিকে ঘটেছে এ ঘটনা।
এঘটনায় শহর আলী বাপের পাড়া গ্রামের মনির উদ্দিনের স্ত্রী কুলছুমা বেগম (৩৫) বাদী হয়ে থানায় লিখিত এজাহার দায়ের করেন। এতে অভিযুক্ত করা হয়েছে। একই এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের পুত্র মোঃ আমজাদ হোছাইন, সাজ্জাদ হোসেন, বশির আহামদের পুত্র জাহাঙ্গীর আলম, রফিক আহামদের পুত্র মোশারফ হোসেনসহ অজ্ঞাত আরো কয়েকজনকে।
বাদী জানিয়েছেন, তার ছেলে খোর্শেদুল ইসলাম বাদল (১৬) শীলখালী উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০ম শ্রেণীতে লেখাপড়া করে। ঘটনার দিন ১৫জুন সকাল ৮ ঘটিকার দিকে স্থানীয় রমিজ উদ্দিনের দোকানে চিনি খরিদ করতে যায়। ওই সময় দেখতে পান মো: ইমরানকে মারধর করতে দেখলে খোর্শেদুল ইসলাম বাদল এগিয়ে গিয়ে তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করলে অভিযুক্তরা ধারালো অস্ত্র নিয়ে বাদলকে হত্যার চেষ্টায় মাথা লক্ষ্য করে আঘাত করলে বাম হাত দিয়ে প্রতিহত করাকালে বাম বাহুতে লেগে গুরুতর রক্তাক্ত হাড়কাটা জখম করে এবং সর্বশরীরে বেধম প্রহার করে। এসময় তার কাছ থেকে ১৬হাজার টাকা মূল্যের একটি স্কীন টার্চ মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে চকরিয়া সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করেন। এঘটনায় থানায় এজাহার দায়ের করায় ক্ষিপ্ত হয়ে  বর্তমানেও অশ্লীল গালি-গালাজসহ হুমকি ধমকি প্রদর্শন দিয়ে যাচ্ছে।
চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, ঘটনার বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। তা তদন্ত করে দেখার জন্য মাতামুহুরী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র করে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সত্যতা পেলে মামলা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.