চকরিয়ার মাওলানা আবুল হোছাইন আনসারী শিক্ষায় অবদানে এবার মাদার তেরেসা সম্মাননা পেলেন

আবদুল মজিদ,চকরিয়া
শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ কক্সবাজার জেলার অন্যতম সফল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চকরিয়া উম্মাহাতুল মোমেনীন মহিলা দাখিল মাদরাসার সুপারিনটেনডেন্ট মাওলানা মোহাম্মদ আবুল হোছাইন আনসারী “শেরে-বাংলা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড” পদকে ভূষিত হওয়ার পর এবার পেলেন “মাদার তেরেসা স্মৃতি পদক” সম্মাননা। গত ২২ নভেম্বর বিকাল ৫ঘটিকায় ঢাকার কাটাবন মোড় নিউ চিংড়ি চাইনিজ রেস্টুরেন্ট হলে “মাদার তেরেসা স্মৃতি ফাউন্ডেশন” আয়োজিত “বর্তমান শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নে শিক্ষকের ভূমিকা ও আমাদের করণীয়” শীর্ষক আলোচনা সভা ও গুণিজন সংবর্ধণা অনুষ্ঠানে গঠিত জুরিবোর্ড কর্তৃক সমীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ কক্সবাজার জেলা থেকে মাওলানা মোহাম্মদ আবুল হোছাইন আনসারীকে মনোনীত করে উক্ত সম্মাননা গোল্ড মেডেল, স্মৃতি পদক ও ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়েছে।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের মাননীয় মাননীয় বিচারপতি মীর হাসমত আলী। উদ্বোধক ছিলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষা সৈনিক লায়ন শামসুল হুদা। প্রধান আলোচক ছিলেন ইবাইস ইউনিভার্সিটির মাননীয় উপচার্য অধ্যাপক মো: আহসান উল্লাহ। বিআরটিসি’র চেয়ারম্যান, সাবেক তথ্য সচিবক ও ফাউন্ডেশনের প্রধান উপদেষ্টা সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের সহসভাপতি এড্ আদিবা আঞ্জুম মিতা এমপি, ভাষা সৈনিক আবদুল জলিল, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব পীরজাদা শহীদুল হারুন প্রমূখ। অনুষ্ঠানের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন ফাউন্ডেশনের সভাপতি আওলাদ হোসেন, শেরে বাংলা ফাউন্ডেশনের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো: মঞ্জুর হোসেন ঈসা ও মহাসচিব মো: আর কে রিপন। অনুষ্ঠানে সরকারের বিভিন্ন পদস্থ ও আয়োজনকারী সংগঠনের কর্মকর্তাগন এবং সারাদেশ থেকে আগত গুনীজন এবং কৃতি শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। সংবর্ধিত সুপারিনটেনডেন্ট মাওলানা মোহাম্মদ আবুল হোছাইন আনসারী চকরিয়া পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের হালকাকারা মৌলভীরচর শাম্বীরপাড়া গ্রামের মৌলভী বাড়ির মরহুম মাওলানা এমদাদ আহমদ ও নুর জাহান বেগমের পুত্র। তিনি ইতিপূর্বে গত ২৫অক্টোবর রাজধানী ঢাকার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে “শেরে-বাংলা এ কে ফজলুল হক” এ্যাওয়ার্ড সম্মাননা পদক লাভ করেন এবং ৩১ অক্টোবর’১৯ইং “জ্ঞানতাপস ড. স্যার মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ সম্মাননা-২০১৮ পদকে” ভূষিত হন।
সম্মাননা প্রাপ্তিতে অনুভুতি প্রকাশ করে বলেন, সবার সহযোগিতায় অতীতের মতো সামনের দিনগুলোতেও শিক্ষা বিস্তারে কাজ করতে চাই। মেধানির্ভর লেখাপড়ার মাধ্যমে নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদেরকে দক্ষ মানব সম্পদে পরিণত করতে আমার প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। সে জন্য সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। এদিকে “মাদার তেরেসা স্মৃতি পদক সম্মাননা এ্যাওয়ার্ড লাভ করায় চকরিয়া উম্মাহাতুল মোমেনীন মহিলা দাখিল মাদরাসা পরিচালনা কমিটি, শিক্ষক-শিক্ষিকা, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা তাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।####

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.