চকরিয়ায় যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে পাষন্ড স্বামী

চকরিয়ায় নতুন করে পিতার বাড়ি থেকে যৌতুক এনে দাবীতে স্ত্রীর উপর অমানবিক নির্যাতন চালিয়েছে পাষন্ড স্বামী। হত্যার চেষ্টা ও নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে স্ত্রীর পিতৃালয়ে খবর দিলে ১৬ নভেম্বর সকালে স্বামীর পাষবিক নির্যাতনের কবল থেকে স্ত্রীকে উদ্ধার করে স্ত্রীর পিতৃালয়ের লোকজন। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। উপজেলার চিরিংগা ইউনিয়নের সওদাগরঘোনা গ্রামে ঘটেছে এ ঘটনা।
জানাগেছে, চলতি সনের ৭ মার্চ ইসলামী শরীয়াহ মতে ও ৮লাখ টাকার দেনমোহরে চকরিয়া উপজেলার ভেওলা মানিকচর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের পাহাড়িয়া পাড়া গ্রামের রশিদ আহমদের মেয়ে আশেয়া বেগমের (২০) সাথে বিয়ে উপজেলার চিরিংগা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সওদাগরঘোনা গ্রামের বাহাদুর করিম প্রকাশ বাবু মিয়ার ছেলে বিদেশ ফেরৎ মহিউদ্দিনের। তাদের সংসার সুন্দরভাবে চলে আসলেও কিছুদিন যেতে না যেতে স্বামী বিদেশ যাওয়ার নাম করে স্ত্রীর পিতৃালয় থেকে নতুন করে যৌতুকের টাকা এনে দিতে অমানবিক মারধরসহ নানাভাবে নির্যাতন শুরু করে। হতভাগা স্ত্রী আশেয়া বেগমের পিতা রশিদ আহমদ জানান, বিয়ের সময় তারা ফার্ণিচার সামগ্রীসহ ৪লক্ষাধিক টাকার যৌতুক দেন। এরপরও মেয়ের সুখের আশায় মেয়ের জামাইর জন্য বেশ কয়েকবার টাকা পাঠান। সর্বশেষ গত ১৪নভেম্বর সকাল থেকে রাত পর্যন্ত মেয়ের জামাই বিদেশ যাওয়ার নাম করে যৌতুকের টাকা এনে দিতে ৪বার মারধর করে তার মেয়েকে। এক পর্যায়ে গলায় ওড়না পেঁিচয়ে হত্যার চেষ্টাও করে। আমরা পরিবারের লোকজন খবর পেয়ে ১৬নভেম্বর সকালে মেয়েকে শ্বাশুর বাড়ির জিম্মাদশা থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছি। ঘটনার নিশ্চিত করে চিরিংগা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন জানান, বিষয়টি অত্যন্ত দু:খজনক। এরপরও আমরা সমাধানের চেষ্টা করবো। এদিকে পরিবারের পক্ষ থেকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল কক্সবাজারে মামলার প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে জানাগেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.