নিরীহ লোকজনকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি ফাঁসিয়াখালীতে বন্দোবস্তিকৃত জায়গা জবর দখলের মরিয়া সানমার কোম্পানি

চকরিয়া অফিস:
ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে বন্দোবস্তিকৃত জায়গা জোরপুর্বক দখল নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে সানমার কোম্পানির বিরুদ্ধে। তাছাড়া ৫০ বছর ভোগ দখলীয় বন্দোবস্তিকৃত বসতঘর দখলে নিতে মরিয়া হয়ে পর্যায়ক্রমে নিরীহ জনগণকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে ভোক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কাছে আইনী সহায়তা কামনা করছেন।
জানাগেছে, চকরিয়ার সীমান্তবর্তী পার্বত্য বান্দরবান লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের পাগলীর আগা ২নং ওয়ার্ডের স্থানীয় বাসিন্দা মোহামমদ হোসাইন গং এর আর হোল্ডিং বন্দোবস্তকৃত বসতঘরের জায়গা জোরপুর্বক দখলের মানষে দফায় দফায় নিরীহ মানুষদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে আসছে সানমার নামে একটি কোম্পানির মাঈনুল হক নামের এক কর্মকর্তা। এ ঘটনার ব্যাপারে অভিযোগে মোহামমদ হোসাইন গং জানান, ১৯৭৩/৭৪ সনে হোল্ডিং নং ১৩২ এবং ৬২ নং খতিয়ানের ৯ একর জমি গণি বেপারীর পুত্র আলী আহমমদের কাছ থেকে ক্রয় করেন।যাহা ৩১০ নং মিউটেশন মামলা মূলে ৭৯ সনের ২৯শে জুন মাসে জেলা প্রশাসক বরাবর রেকর্ড় রয়েছে। উল্লেখিত দাগ নং যথা ৫০৯০,০১/৫০৯১-৭৯/৫০৯২-১২/৫০৯৩-২০/৫০৯৯-৬৭/১০৫২৮-১২১ দাগগুলো আমাদের জায়গা। উক্ত জায়গা আমাদের নামে কাগজে কলমে খতিয়ানে সব মিলিয়ে রেকর্ড় করা ডকোমেন্ট রয়েছে। তা শর্তেও সানমার কোম্পানির অভিযুক্ত কর্মকর্তা মনগড়া একজনের কাছ থেকে জমি ক্রয় করেছে বলে দাবি করেন। যার কোন হদিস পাওয়া যাবেনা। এতে আমরা জানতে চাইলে, আমাদেরকে নিয়ে মিথ্যা মামলা করেন এমনকি প্রাণে মারার হুমকি দিয়ে আসছে। ##

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.