চকরিয়ার খুটাখালীতে জমি বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় পিতা-পুত্র আহত

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় জমি বিরোধের পূর্বশত্রুতাকে কেন্দ্র করে থানায় অভিযোগ দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিপক্ষ হামলা চালিয়ে চাকুরিজীবি ছেলে ও পিতাকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে। শুক্রবার (৬সেপ্টেম্বর) বেলা পৌনে ১২টার দিকে উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মাইজপাড়া হেফজখানা রোড সংলগ্ন এলাকায় এঘটনা ঘটেছে। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে পুত্র সাইফুল ইসলাম (৩৫) এর অবস্থা আশংখাজনক। তিনি ওই এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে ও চট্টগ্রামস্থ একটি বেসরকারী কোম্পানির চাকুরিজীবি।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, খুটাখালী ইউনিয়নের মাইজপাড়া গ্রামে আহত সাইফুলের পিতা নুরুল ইসলামের দীর্ঘ ৪০ বছরের ভোগদখলীয় ও মালিকানাধীন এক খন্ড জমি রয়েছে। ওই জমিতে বৃদ্ধ নুরুল ইসলাম একটি দোকানঘর নির্মাণ করে ভাড়া দেন এবং অবশিষ্ট জমিতে চাষাবাদ করেন। কিন্তু সম্প্রতি সময় থেকে ওই জমিটি পৈতৃক সম্পত্তি বলে দাবি করে জবর দখল চেষ্টাসহ নানাভাবে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছিলো একই এলাকার মৃত মোহাম্মদ হোসেনের পুত্র এনামুল হক গং। এনিয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দেন নুরুল ইসলাম।
ভূক্তভোগী নুরুল ইসলামের পরিবার সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে বাড়ির পাশবর্তী এক প্রতিবেশীর জানাযার নামায পড়ে দোকানে বসা অবস্থায় অভিযুক্ত মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে এনামুল হকের নেতৃত্বে রমজান আলী, ইলিয়াছ, মমতাজ, তানভীর, তারেক মাহমুদসহ ভাড়াটিয়া ১৫-২০জনের সন্ত্রাসী বাহিনী লাঠি, ছুরি ও কিরিছ নিয়ে হামলা চালায়। হামলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর জখমপ্রাপ্ত হন সাইফুল ইসলাম (৩৮) ও তার বয়োবৃদ্ধ পিতা নুরুল ইসলাম (৭৪)। আহতদের মধ্যে সাইফুলের মাথা ফেটে প্রচুর রক্ত ক্ষরণ হয়েছে।
চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুর রহমান বলেন, খুটাখালীতে পারিবারিক জমির বিরোধ নিয়ে হামলার ঘটনায় পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এব্যাপারে ভূক্তভোগী পরিবার লিখিত অভিযোগ দিলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.