মুসলিম মেয়েদের প্রকাশ্যে গণধর্ষণ করতে বললেন বিজেপি নেত্রী

মুসলিম মেয়েদের প্রকাশ্যে গণধর্ষণ করতে বললেন বিজেপি নেত্রী

ভারতে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর দেশজুড়ে মুসলিমদের ওপর নির্যাতনের মাত্রা ভয়াবহ আকার নিয়েছে। বিভিন্ন রাজ্যে কোনো কারণ ছাড়ায় মুসলিমদের ওপর হামলা ও হত্যার ঘটনার নৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এমন অবস্থায় উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের আরও উসকে দিয়েছেন বিজেপি নেত্রী সুনীতা সিং। তিনি বলেছেন, ‘হিন্দু পুরুষদের উচিত মুসলিম মেয়েদের প্রকাশ্যে গণধর্ষণ করা’।
নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক পোস্টে এমন কথা বলেছেন বিজেপির মহিলা মোর্চার এই নেত্রী। এই মন্তব্যের পর তাকে দলীয় পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।
উত্তরপ্রদেশের রামকোলার বিজেপি মহিলা মোর্চার নেত্রী সুনীতা সিং গৌড় ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘মুসলিমদের জন্য একটাই সমাধান রয়েছে। হিন্দু ভাইয়েদের ১০ জন করে দল তৈরি করে মুসলিম মা ও বোনেদের প্রকাশ্য রাস্তায় গণধর্ষণ করা উচিত। এরপর সবাইকে দেখানোর জন্য তাদেরকে বাজারের মাঝখানে ঝুলিয়ে দেওয়া উচিত।’
এখানেই না থেমে তিনি আরও বলেছেন, ‘মুসলিম মা ও বোনেদের উচিত নিজেদের সম্ভ্রম লুঠ করতে দেওয়া। কারণ দেশকে রক্ষা করতে এছাড়া আর অন্য কোনও উপায় নেই।’
ফেসবুকে এই পোস্টটি করার পরই তা ভাইরাল হয়ে যায়। এই নেত্রীর সমালোচনায় মুখর হয়েছেন ভারতীয়রা। প্রবল চাপের মুখে তাকে দলীয় পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছে বিজেপি। বিজেপি মহিলা মোর্চার জাতীয় সভানেত্রী বিজয় রাহাতকর গৌড়ের পোস্টের জবাবে বলেছেন, এ ধরনের মন্তব্য কোনোভাবেই সহ্য করা হবে না।
গোটা ভারত জুড়ে মুসলিমদের ওপর অমানবিক নির্যাতন চালাচ্ছে কথিত গো-রক্ষক ও জয় শ্রীরামের স্লোগানধারী উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা। প্রতিনিয়তই গণমাধ্যমে মুসলিম নির্যাতনের খবর উঠে আসছে। এর পেছনে রয়েছে মূলত হিন্দু উগ্রবাদী সংগঠন আরএসএস যাদের মূল মদদদাতা বিজেপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.