চকরিয়া আইডিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী

মানসম্মত লেখাপড়া নিশ্চিতের মাধ্যমে চকরিয়ার নতুন প্রজন্মকে আর্দশবান সুনাগরিক গড়তে হবে

চকরিয়া আইডিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্যোগে মাহে রমজানের ভুমিকা শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল বৃহস্পতিবার বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। চকরিয়া আইডিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহফুজুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চকরিয়া পৌরসভার দুই নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি তাজুল ইসলাম, বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক নুরুল আবছার বাদশা। বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য, বিদ্যালয়ের শিক্ষকমন্ডলী। এতে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, অভিভাবকমহল ও সুধীজন।
অনুষ্ঠানে উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের আমলে চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নের বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। শিক্ষার প্রতি সরকার প্রধান আন্তরিক বলেই সারাদেশের মতো চকরিয়া-পেকুয়ার প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অগ্রযাত্রা অব্যাহত রয়েছে। সরকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আধুনিকায়নে, মানসম্মত লেখাপড়া নিশ্চিতে কাজ করছেন। আগামীতে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে। সেই আলোকে আগামী পাঁচবছরের মধ্যে চকরিয়া উপজেলার একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও উন্নয়ন বরাদ্দ থেকে বঞ্চিত হবেনা। তবে মানসম্মদ শিক্ষা নিশ্চিতে শিক্ষক সমাজকে আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে হবে। তাই সবাই সচেতন ও দায়িত্বশীল হলে চকরিয়ার নতুন প্রজন্ম হবে আগামীদিনের দেশগড়ার সুদক্ষ কারিগর।
তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের সফল প্রধানমন্ত্রী একজন শিক্ষাবান্ধব মানুষ। তিনি বিশেষ নজরদারিতে দেশের শিক্ষাখাতের অগ্রগতি তরান্বিত হচ্ছে। তার প্রমাণ দেশব্যাপী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলোতে অবকাঠামো থেকে শুরু করে সব ধরণের উন্নয়ন। আছে শিক্ষা প্রসারের পরিকল্পিত কর্মসুচি। এরই আলোকে সরকার বছরের প্রথমদিন শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন পাঠ্যবই দিচ্ছে। উপবৃত্তি সুবিধা পাচ্ছে। মেধাবীদের সরকারি চাকুরী নিশ্চিত করা হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের সুন্দর পরিবেশে লেখাপড়া নিশ্চিতে কাজ করছে সরকার।
উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার মান্নোয়ন নিশ্চিতকল্পে চকরিয়া উপজেলার সবশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সাজানো হবে। আগামীতেও সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমের আওতায় চকরিয়া উপজেলার প্রতিটি সেক্টরে উন্নয়নের ক্ষেত্রে বিদ্যালয়ের পাশাপাশি দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মাদরাসা গুলোতেও সমান অগ্রাধিকার নিশ্চিত করা হবে। আমি চাই লেখাপড়ার মাধ্যমে নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদেরকে সুনাগরিক হিসেবে তৈরী করতে হবে। সেইজন্য অভিভাবক ও শিক্ষক মন্ডলীকে সজাগ ভুমিকা পালন করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.