শাহারবিলে স্কুলের জমি জবর দখল করে পাকা দালান নির্মাণে স্কুল সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়া উপজেলার সাহারবিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জায়গায় অবৈধ পাকা দালান নির্মাণ নিয়ে দখলবাজদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন স্থানীয় এক অভিভাবক। এনিয়ে সাহারবিল উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক-শিক্ষিকা-অভিভাবক,শিক্ষার্থী ও স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।
অভিযোগে জানাগেছে, সাহারবিল বিএমএস উচ্চ বিদ্যালয় এবং সাহারবিল সরকারী প্রার্থমিক বিদ্যালয় দুইটি কমিটির সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল। কিন্তু প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মালিকানাধীন একটি খালি যায়গায় অবৈধভাবে বহুতল বিশিষ্ট পাকা দালান নির্মাণ করছেন ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল ও তার ভাই আবুল কালাম। এনিয়ে স্থানীয়রা প্রতিবাদ করলেও কোন সমাধান না মেলায় স্থানীয়দের পক্ষে স্কুলের অভিভাবক মো: জুনাইদুল হক বাদী হয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,চকরিয়া বরাবরে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগটি আমলে নিয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)কে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। জানাগেছে, উচ্চ বিদ্যালয়ের উজজ খতিয়ান নং ২২২২,দাগ নং ৬৮৮৪ জমির পরিমাণ ৩০ শতক। কিন্তু প্রাইমারী স্কুলের দাগ ৬৭৮৩, জমির পরিমাণ ১২ শতক। ২টি স্কুলের আলাদা ২টি দাগ ও আলাদা সীমানা নির্ধারণ করা থাকলেও প্রাইমারী স্কুলের জায়গায় অবৈধ বাণিজ্যি স্থাপনাটি নির্মাণ করছেন। অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরুদ্দিন মোহাম্মদ শিবলী নোমান। জানতে চাইলে সাহারবিল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল বলেন, তিনি এবং তার ভাই কোন জায়গা দখল করছেননা। মূলত: ওই জায়গাটি হাইস্কুলের। তাই হাইস্কুলের নামে একটি দোকান নির্মাণ করা হয়েছে। ইউএনও অফিসে লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত করে যাদের যে স্কুলের জমি প্রমাণিত হবে, তারাই জমিটির মালিকানা ভোগ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.