চকরিয়ায় টাকার জন্য ভাড়া বাসায় স্ত্রীকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় যৌতুকের টাকা এনে না দেয়ায় স্ত্রীকে গলাটিপে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মাদকাসক্ত স্বামী মিজানুর রহমানকে (২৬) স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আটক করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে চকরিয়া পৌরসভার মগবাজার এলাকার একটি ভাড়া বাসায় ঘটেছে এ ঘটনা। নিহত ফাতেমা বেগম রুম্পা (২০) মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী ইউনিয়নের সিকদারপাড়ার বাহাদুর আলমের মেয়ে। আটক মিজানুর রহমান চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের সোয়াজানিয়া এলাকার মৃত ছাবের আহমদের ছেলে।
নিহতের ছোট বোন আশরফা বিলকিস বলেন, চকরিয়া মহিলা কলেজে লেখাপড়া করতে এসে একবছর পূর্বে ডুলাহাজারা ইউনিয়নের সোয়াজানিয়া এলাকার মৃত ছাবের আহমদের ছেলে মিজানুর রহমানের সাথে আমার বড় বোন প্রেমের সম্পর্কে জড়ান। পরে তাঁরা পরিবারের অমতে পালিয়ে বিয়েও করেন। এখনো তাদের সংসারে কোন সন্তান হয়নি।
নিহতের মাতা মোবারেকা বেগম অভিযোগ করে বলেন, আমার মেয়ে ফাতেমা বেগম রুম্পাকে বিয়ের পর থেকে স্বামী মিজান ও শ্বাশুর বাড়ির লোকজন যৌতুকের টাকার নির্যাতন চালিয়ে আসছে। এমনকি যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় তাদেরকে বাড়িতেও জায়গা দেয়নি। সেই কারনে তাঁরা চকরিয়া সদরে ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন।
তিনি দাবি করেন, প্রেমের সম্পর্কে প্রেমের পর থেকে বিভিন্ন সময় যৌতুকের টাকার জন্য অভিযুক্ত স্বামী মারধর করতো আমার মেয়েকে। এ নিয়ে দুইজনের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ লেগে থাকতো। এতসব নির্যাতনের পরও সংসারের পাশাপাশি ফাতেমা চকরিয়া মহিলা কলেজে লেখাপড়া চালিয়ে আসছিলেন। কিন্তু যৌতুকের জন্য আজ তাকে হত্যা করা হয়েছে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চাই। জড়িতদের কঠিন চাই।
চকরিয়া উপজেলা সরকারি হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক তামিমুল হাসান বলেন, গতকাল দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কয়েকজন যুবক ফাতেমাকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। আমরা শাররীক পরীক্ষা করতে গিয়ে দেখি ফাতেমা হাসপাতালের আনার আগেই মারা গেছেন।
চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত স্বামী মিজানুর রহমানকে আটক করা হয়েছে। লাশটি উদ্ধারের পর প্রাথমিক সুরতহাল রির্পোট তৈরী শেষে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.