চকরিয়ার বদরখালী ষ্টীমার ঘাট ইজারাদারের ৫লাখ টাকা টোল অনাদায়ের অভিযোগ

আবদুল মজিদ:
কক্সবাজার জেলা পরিষদের মালিকানাধীন চকরিয়া উপজেলার বদরখালী ষ্টীমার ঘাটের প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার টোল অনাদায়ের অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্যানটা ওশান কনস্ট্রাকশন কোম্পানীর বিরুদ্ধে। এনিয়ে বদরখালী ষ্টীমার ঘাটের ইজারাদার নুরুল আবছার বাদী হয়ে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিল্লোল বিশ্বাস গত ২৮ ফেব্রæয়ারী এক অফিস আদেশ (স্মারক নং জেপ-কা/এগার-০২/২০১৭/৫২) মূলে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে ইজাদারের পাওনা বকেয়া চলতি ৩দিনের মধ্যে পরিশোধ করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। অন্যথায় সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দেন।
বদরখালী ষ্টীমার ঘাট ইজারাদার নুরুল আবছার অভিযোগ করেন, তিনি উক্ত ঘাটটি সরকারী মূল্যের প্রায় দ্বিগুন টাকায় ১৪২৪ বাংলা সনের জন্য ইজারা গ্রহণ করেন। কিন্তু উক্ত জেটির ১শ-দেড়শ মিটারের মধ্যে কোল্ড পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানী কর্তৃক একটি জেটি ঘাট নির্মাণ করেন। জেটি দিয়ে বেসরকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্যানটা ওশান কনস্ট্রাকশন ইতিপূর্বে জেলা পরিষদের ঘাট দিয়ে মালামাল আনা-নেওয়া করেন। কিন্তু বর্তমানে জেলা পরিষদের বৈধ ঘাট দিয়ে মালামাল পারাপার না করে অবৈধভাবে নির্মিত জেটি দিয়ে মালামাল আনা-নেওয়া করছেন। ফলে জেলা পরিষদের রাজস্ব আদায় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ফলে জেলা পরিষদের ইজারা বিধি অনুসারে জেটির এক মাইল উপরে ও নীচে এলাকায় কোন বৈধ মালামাল উঠানামা করলে জেলা পরিষদের ইজারাদারকে টোল প্রদান করার নিয়ম রয়েছে। কিন্তু ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্যানটা ওশান কনস্ট্রাকশন জেটি নির্মাণের জন্য প্রায় ৩ লক্ষ সিএফটি বালি, জ্জ হাজার টন ষ্টিলের বারসহ বিভিন্ন মালামাল আনায়ন ও নির্মাণ শ্রমিকদের আসা যাওয়া বাবদ প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকা ইজারাদারের টোল বকেয়া রয়েছে। ফলে জেলা পরিষদের ইজারাদার বকেয়া টোল আদায়ে এ অভিযোগটি করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.