চকরিয়ায় প্রাইভেটে পড়ানোর নাম দিয়ে প্রেমে জড়ানোই শিক্ষক আবদুল মালেককে বহিষ্কার

চকরিয়া অফিস:
প্রাইভেটের নাম দিয়ে ছাত্রীদের ফাঁসিয়ে প্রেমে জড়াতে বাধ্য করার অভিযোগে চকরিয়া কেন্দ্রীয় উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আবদুল মালেককে বহিষ্কার করেছে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি। আবদুল মালেক চকরিয়া কেন্দ্রীয় উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক। তাহার বাড়ি চকরিয়া পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের আকবরীয়া পাড়ায়। তিনি এক সন্তানের জনক।
আবদুল মালেক ২০১২ সাল থেকে চকরিয়া কেন্দ্রীয় উচ্চ বিদ্যালয়ে ইংরেজী বিষয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। কিন্তু তিনি ২০১৯ সালের একজন এস এস সি পরীক্ষার্থী ছাত্রীকে প্রলোভনে ফেলে এবং অতিরিক্ত পড়ার নাম দিয়ে প্রেমের সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করেন। কিন্তু বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর ভুক্তভোগী ছাত্রীর পরিবার ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি প্রমাণসহ হাতে-নাতে ধরতে পারলে আবদুল মালেককে তাৎক্ষনিক এক সিদ্ধান্তের মাধ্যমে মহান শিক্ষকতার পেশাকে কলুষিত করা এবং অন্যান্য শিক্ষকদের এ ধরণের অমানবিক কাজের পরিণতির ভয় সৃষ্টিকল্পে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকের পদ থেকে বহিষ্কার করেন। অভিযুক্ত ও বহিস্কৃত শিক্ষক আবদুল মালেক বর্তমানে স্ব-পরিবারে পলাতক রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.