চকরিয়ার ইসলামনগরে গাজা ক্রয়কালে এক গাজাড়ি আটক করে পুলিশে সোপর্দ

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ার ইসলামনগরে প্রকাশ্যে অবৈধ গাজা বিক্রির খবর বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পর ধর্মপ্রাণ স্থানীয় জনতা আবুল কালাম (৪৫) নামে এক গাজাড়িকে হাতে-নাতে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে। শনিবার (৮ ডিসেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে চকরিয়া উপজেলার কৈয়ারবিল ইউনিয়নের মহাসড়কের ইসলামনগর ষ্টেশন মসজিদ লাগোয়া কবির আহমদের বসতবাড়িতে ঘটেছে এ ঘটনা। পরে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ আলমগীর ঘটনাস্থল থেকে গাজা বিক্রেতা কবির আহমদ ও তার পরিবারের বিষয়ে স্বাক্ষী প্রমাণ নিয়ে গাজাড়ি আবুল কালামকে থানায় নিয়ে আসে।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ইসলামনগর এলাকার কবির আহমদ ও তার স্ত্রী ছেনুয়ারা বেগম দীর্ঘ ১০ বছর ধরে প্রকাশ্যে গাজা বিক্রি করে আসছে। ইতিপূর্বে তাদেরকে একাধিকবার থানা পুলিশ আটকও করে। পরে ব্যবসা না করার শর্তে মুচলেখা দিয়ে ছাড়া পায়। কিন্তু পুলিশের খাসা থেকে বের হয়েই ফের শুরু করে অবৈধ গাজা ব্যবসা। উল্লেখিত কবির আহমদ ও ছেনুয়ারা ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে প্রশাসন ও সংবাদ মাধ্যমে মিথ্যা তথ্য দিয়ে স্থানীয় প্রতিবাদকারী একই এলাকার মৃত আব্বাস আহমদের পুত্র আনোয়ার হোসেন ড্রাইভারকে গাজা বিক্রেতা এবং বাহাদুর মিয়ার পুত্র জামাল উদ্দিন বাদশাকে তার সহযোগি সাজিয়ে নানাভাবে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করেছে। অথচ: তারাই স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসল্লীদের নিয়ে গাজা বিক্রয় ও সেবনে প্রতিরোধ করে আসছে।
জামাল উদ্দিন বাদশা এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন, কবির আহমদ ও তার স্ত্রী ছেনুয়ারা বেগম দীর্ঘ ১০ বছর ধরে প্রকাশ্যে গাজা বিক্রি করে আসছে। এসবের প্রতিবাদ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে সহ জড়িয়ে মিথ্যাচার করেছে। তাই তিনি স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসল্লীদের সাথে নিয়ে প্রকৃত গাজাড়িকে উল্লেখিত গাজা বিক্রেতা ছেনুয়ারা বেগমের বাড়ি থেকে ৫ পুটুলি গাজাসহ আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন। কবির আহমদ ও তার স্ত্রী ছেনুয়ারা বেগমসহ তার পরিবার ইসলামনগর মসজিদের পাশ্বেই এসব গাজা, জোয়াসহ অবৈধ মাদক ব্যবসায় জড়িত। তাদের অবৈধ ব্যবসার ফলে এলাকার যুব সমাজ থেকে শুরু করে সব শ্রেণি পেশার মানুষ দিন দিন খারাপ কাজের দিকে ধাবিত হচ্ছে। তাই স্থানীয়রা উপজেলা ও থানা প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ পূর্বক গাজা বিক্রেতা কবির আহমদ ও তার স্ত্রী ছেনুয়ারা বেগম, তার ইন্ধনদাতা প্রভাবশালীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবী করেন।
চকরিয়া থানার অফিসার ইনচাজ (ওসি) মো: বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, স্থানীয় জনতা কর্তৃক এক গাজাড়িকে হাতে-নাতে ধৃত করার বিষয়টি তিনি অবগত হওয়ার পর থানার টহলরত উপপরিদর্শক (এসআই) মো: আলমগীরের নেতৃত্বে সংগীয় পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পৌছে আবুল কালাম (৪৫) নামে এক গাজাড়িকে আটক করে। সে চকরিয়ার লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের ছিকলঘাট এলাকার ফজু সিকদারের পুত্র। ধৃত আবুল কালামসহ গাজা বিক্রিতে জড়িতদের বিরুদ্ধে তিনি আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.