মহেশখালীর পর এবার ইয়াবার রাজ্য টেকনাফ শান্ত করতে চান সাংবাদিক আকরাম হোসাইন

মহেশখালীর পর এবার ইয়াবার রাজ্য টেকনাফ শান্ত করতে চান সাংবাদিক আকরাম হোসাইন

বিশেষ প্রতিবেদক :
মহেশখালীর অস্ত্রের কারখানা ও জলদস্যুদের বিরুদ্ধে সচিত্র অনুসন্ধানি সংবাদ করে দেশ জুড়ে তকমা লাগিয়ে দেওয়ার পর চ্যানেল টুয়েন্টিফোরের সাংবাদিক আকরাম হোসাইন এবার কক্সবাজারের বদনাম গুছাতে টেকনাফে প্রশাসনের নাগালের বাহিরে থাকা বাঘা বাঘা ইয়াবা ব্যবসায়ীদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এনে শান্তি ফেরানোর উদ্যোগ নিয়েছেন।
অপরদিকে ক্রস ফায়ার আতংকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকানো বাঘা বাঘা ইয়াবা ব্যবসায়ীদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে কাজ শুরু করেছেন চ্যানেল টুয়েন্টিফোরের সাংবাদিক আকরাম।
জানাগেছে, মহেশখালী ও কুতুবদিয়া ভিত্তিক জলদস্যুদের কয়েকটি গ্রুফ স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আনার পর এবার বিগত কয়েক মাস ধরে জীবনে ঝুঁকি থাকা সত্বেও টেকনাফে ও উখিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রাণালয়ের তালিকাভুক্ত ও চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ীদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরার স্বপ্ন দেখাচ্ছেন তিনি। ইতিমধ্যে তিনি ৭ ডিসেম্বর শুক্রবার চ্যানেল টুয়েন্টিফোরে টেকনাফের ইয়াবা ব্যবসায়ীদের নিয়ে একটি অনুসন্ধানী সংবাদ প্রকাশ করে দেশ জুড়ে তকমা লাগিয়ে দিয়েছেন। ফলে পালিয়ে থাকা ইয়াবা ব্যবসায়ীদের মধ্যে নতুন করে আতংক সৃষ্টি হয়েছে। অনেক ইয়াবা ব্যবসায়ীরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে প্রাণ ভয় আর ক্ষমা দুই তাগিদে টেকনাফ ও উখিয়া ছাড়ছে বলে নির্ভরোগ্য সূত্রে জানাগেছে।
ইতোমধ্যে টেকনাফের অনেকে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন এই সিনিয়রসাংবাদিক।এর আগে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মাধ্যমে মহেশখালী কুতুবদিয়া ভিত্তিক ৫ টি জলদস্যু গ্রুফের…. স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনায় প্রশংসিত হয়েছেন আকরাম হোছাইন।
আকরাম হোসাইন এক প্রতিক্রিয়ায় জানান, বিগত দুই মাস কক্সবাজারের টেকনাফ ও উখিয়ার দুর্গম এলাকায় ঘুরেছি। অনেকেই সাড়া দিয়েছেন। তাদের বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অবহিত করা হয়েছে। শিগগিরই ফলাফল দেখা যাবে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রশাসনের শীর্ষ এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, যদি ইয়াবা ব্যবসায়ীরা আত্মসমপন করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে চাইলে সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে।
অপরদিকে চট্টগ্রামের ডি.আইজি খন্দকার গোলাম ফারুক চ্যানেল টুয়েন্টিফোরকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, যদি ইয়াবা ব্যবসায়ীরা আত্মসমপণ করে পুলিশের পক্ষ থেকে সব ধরনের আইনি সহযোগিতা দেওয়া হবে। তিনি আরোও বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে সমন্নয় করে তাদের মামলা থেকে অব্যাহতির জন্য সহযোগিতা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.