চকরিয়ায় বিদ্যালয়ে পরীক্ষা চলাকালে হামলা, শিক্ষার্থীসহ আহত ৪

চকরিয়া প্রতিনিধি:

চকরিয়ায় দাবীকৃত চাঁদা না দেওয়ায় বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা চলাকালে একটি সংঘবদ্ধচক্র হামলা চালিয়েছে। হামলায় ২শিক্ষার্থী ও অফিস স্টাফসহ ৪জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুর সাড়ে ১১টার দিকে চকরিয়া মাল্টিমিডিয়া স্কুলে ঘটেছে এ ঘটনা। এনিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী,শিক্ষক, অভিভাবক ও স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

চকরিয়া মাল্টিমিডিয়া স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো: গিয়াস উদ্দিন অভিযোগ করেন, স্থানীয় মরহুম ছমি উদ্দিনের পুত্র ওবাইদুল হাকিম ওরফে লাদেন দীর্ঘদিন ধরে তার কাছ থেকে অন্যায়ভাবে চাঁদা দাবী করে আসছে। দাবীকৃত চাঁদা না দেওয়ায় বিদ্যালয়ের মাঠের একটি অংশে জোরপূর্বক পাকা ওয়াল নির্মাণের চেষ্টাও চালায়। এনিয়ে থানায় অভিযোগ করলে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাহেবের নির্দেশে উপপরিদর্শক মো: আলমগীর সরে জমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তার অপসারণ করে দেন। এরপরও তার কাছ থেকে (বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের) চাঁদা দাবী অব্যাহত রাখে। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১১টার দিকে ওবাইদুল হাকিম লাদেনের নেতৃত্বে আরো ১০/১৫জনের সংঘবদ্ধ বাহিনী নিয়ে দা, ছোড়া,হাতুড়ী নিয়ে বার্ষিক পরীক্ষা চলাকালীন অবস্থায় অবৈধভাবে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করে অতর্কিত অবস্থায় হামলা চালায়। এসময় পরীক্ষার্থীরা (শিক্ষার্থী) আত্মরক্ষার্থে পরীক্ষা হল ত্যাগ করে পালিয়ে যায়। ওই সময়ে সন্ত্রাসী বাহিনীর হামলায় গুরুতর আহত হন বিদ্যালয়ের কম্পিউটার অপারেটর ও কাজীরপাড়া গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের পুত্র মো: ইমন (১৯), কর্মচারী ও বানিয়ারছড়া এলাকার মনজুর আলমের পুত্র রবিউল ইসলাম (১৮), করাইয়াঘোনা গ্রামের নুরুল হকের পুত্র মো: মিছবাহ (১৮) ও করাইয়াঘোনা গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের পুত্র রহিম উদ্দিন (১৭)। বিদ্যালয়ের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন আরো জানান, তিনি এ বিষয় নিয়ে মামলার প্রস্তুতি নিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.