চকরিয়া-পেকুয়া আসনে নৌকা’র টিকেট পেলেন জাফর আলম, নেতাকর্মীদের আনন্দ মিছিল

আবদুল মজিদ,চকরিয়া:
অবশেষে সব কল্পনা-জল্পনার অবসান ঘটিয়ে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনে নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলম। গতকাল রবিবার (২৫) বেলা ১১ টার দিকে দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনা স্বাক্ষরিত চুড়ান্ত মনোনয়নপত্রটি বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে জাফর আলমের হাতে তুলে দেন দলের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী।
চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু জানান, আসন্ন নির্বাচনে জাফর আলমের দলীয় মনোনয়নলাভে ঐক্যবদ্ধ হন চকরিয়া উপজেলা, পৌরসভা, পেকুয়া উপজেলা ও মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামীলীগ, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের সকল স্তরের নেতাকর্মী। তারা দফায় দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা ও সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সাথে স্বাক্ষাত করেন। দলীয় টিকেট নিশ্চিত হওয়ায় চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার ২৫টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় আগামী ৩০ ডিসেম্বর নৌকার বিজয় নিশ্চিত না হওয়া পযর্ন্ত কাজ চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রæতি ব্যক্ত করেন।
প্রসঙ্গত, আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ায় ইতিপূর্বে চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করেন জাফর আলম। তিনি এর আগে চকরিয়া পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হন।
সূত্রে জানায়, ২০০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিনা ভোটে চকরিয়া-পেকুয়া আসনে সাংসদ নির্বাচিত হন কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টি নেতা হাজী মোহাম্মদ ইলিয়াছ। তবে ওইসময় আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছিলেন জাফর আলম। কিন্তু জাতীয় রাজনীতির নানা সমীকরণে আসনটি জাপা প্রার্থী ইলিয়াছকে ছেড়ে দেন মহাজোট। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন জাফর আলম। এতে বিএনপি-জামায়াত নির্বাচন বয়কট করার কারণে মৌলভী মোহাম্মদ ইলিয়াছ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় এমপি নির্বাচিত হন। ওই সময় থেকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাহার করলেও রাজনীতির মাঠের হাল ছাড়েননি জাফর আলম। চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলাবাসীর সবসময় সুখে দু:খে ছিলেন তিনি। পরবর্তীতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিনি উপজেলা চেয়ারম্যান নিবার্চিত হয়ে নানা উন্নয়ন কর্মকান্ডে ব্যাপক অবদান রাখেন। দলের যে কোন কর্মসূচী পালনেও অসামান্য ভূমিকা পালন করেন জাফর আলম। এ কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরেও আসেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর নিজস্ব জরিপ ও একাধিক গোয়েন্দা সংস্থার জরিপে উঠে আসে জাফল আলমের নাম।
এদিকে জাফর আলমের মনোনয়ন নিশ্চিত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে চকরিয়া-পেকুয়ার বিভিন্ন স্থানে মিষ্টি বিতরণ ও আনন্দ মিছিল করেছেন দলীয় নেতাকর্মীরা। আনন্দ মিছিলে অংশ নেন জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু, সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রনেতা সেলিম উদ্দিন লিটন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য জাফর আলম সিকদার, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি শহিদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কচির, পৌর যুবলীগের সভাপতি হাসানগীর হোছাইন, সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম সোহেল, ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন আমু, পৌর আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির, পৌর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো: রিয়াদুল ইসলাম, পৌরসভা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা পারভেজ। এছাড়াও পৌরসভার প্রত্যেক ওয়ার্ড এবং উপজেলার প্রায় ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা আনন্দ মিছিল বের করেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.