উখিয়া টেকনাফ আসনে মনোনয়ন চান এমপি বদির শ্যালক জাহাঙ্গীর

উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী

সংগৃহীত ছবি

মনোনয়ন চান এমপি বদির শ্যালক

বিভিন্ন গোয়েন্দা রিপোর্টেও তার স্বচ্ছ ইমেজ, রাজনীতি ও ভোটের মাঠে সুসংহত অবস্থানের বিষয়টি উঠে এসেছে। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তৃণমূলের বিশেষ বর্ধিত সভায় চট্টগ্রাম বিভাগ থেকে একমাত্র বক্তা হিসাবে বক্তব্য দেওয়ার পর থেকে তাকে নিয়ে জল্পনা কল্পনা শুরু হয়।এছাড়া বক্তব্য মঞ্চে উঠার সময় প্রধানমন্ত্রীকে ইঙ্গিত করে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুুল কাদেরের ‘রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ছেলেটি অনেক কষ্ট করেছে’ এবং শেখ হাসিনার ‘আমি জানি’ মন্তব্যের কারণে তাকে বর্তমান সাংসদ আবদুর রহমান বদির বিকল্প ভাবতে শুরু করে উখিয়া-টেকনাফের তৃনমূল নেতাকর্মীরা। এছাড়া বর্তমান সাংসদ আবদুর রহমান বদির বিভিন্ন নেতিবাচক কর্মকান্ডও নৌকার টিকেট পাওয়ার ক্ষেত্রে তার সম্ভাবনাকে আরো উজ্জল করেছে। বর্তমান সাংসদ আবদুর রহমান বদি সম্পর্কে আপন দুলা ভাই হলেও ছাড় দিতে নারাজ শ্যালক জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী। তাঁর সাহসী সিদ্ধান্তের কারণেও কেন্দ্রীয় ও জেলার শীর্ষ নেতৃবৃন্দের সুদৃষ্টিতে রয়েছেন তিনি এমনটি মনে করছেন তার সমর্থকরা।

জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী উখিয়া সদর ইউনিয়নের পর পর দুইবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। প্রথমবার তিনি কক্সবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি, সাবেক চার বার নির্বাচিত এমপি শাহাজাহান চৌধুরীর আপন সহোদর ও সদর ইউনিয়নের চারবারের সাবেক চেয়ারম্যান শাহ কামালকে পরাজিত করেন। দ্বিতীয়বার শাহজাহান চৌধুরীর পুত্র রাজিব চৌধুরীকে পরাজিত করেন।

জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী পিতা নুরুল ইসলাম চৌধুরীও উখিয়া সদর ইউনিয়ন এবং উখিয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন। বড় ভাই হুমায়ন কবির চৌধুরী জেলা পরিষদ সদস্য।  উখিয়া নারী শিক্ষার সর্ব্বোচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও জমিদাতা তার মরহুম পিতা নুরুল ইসলাম চৌধুরী। বর্তমানে জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আজীবন দাতা সদস্য এবং বড় হুমায়ুন কবির চৌধুরীও দাতা সদস্যের পাশাপাশি ওই প্রতিষ্ঠানে অধ্যাপনা করছেন। জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর চাচা অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি।

অপর দুই চাচাও মুক্তিযোদ্ধা এছাড়া জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী স্কুল কলেজ মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা। এছাড়া উখিয়া-টেকনাফে অর্ধশতাধিক সামাজিক সংগঠনে পৃষ্ঠপোষক, উপদেষ্টা ও মূখপাত্র হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হলেও টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণ সমর্থন তার প্রতি রয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল বশর জানান, ‘জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীকে মনোনয়ন দেয়া হলে টেকনাফ আওয়ামী লীগ সর্বশক্তি দিয়ে তার পক্ষে কাজ করব ‘। তিনি আরো বলেন, ‘এমপি বদির কারণে দেশব্যাপী দলের যে ইমেজ ক্ষুন্ন হয়েছে তা পূনোদ্ধারে যাকেই নমিনেশন দেয়া হোক, আমরা তার পক্ষে কাজ করবো’।

এদিকে জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর পক্ষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারনা চালাচ্ছেন তরুণ প্রজন্মের ভোটাররা। বিশেষ করে ছাত্র ও যুব সমাজের কাছে জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বেশ জনপ্রিয় ।

উখিয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমাম হোসেন জানান, ‘জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী নৌকার টিকেট পেলে যুবলীগ ঐক্যবদ্ধভাবে তার জন্য কাজ করবে। উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম আযাদ বলেন, ‘ছাত্রলীগের সকল স্তরের নেতাকর্মীরা জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীকে নৌকার মাঝি হিসাবে দেখতে চায়। তাকে নৌকা প্রতীক দেয়া হলে ছাত্রলীগ কোমর বেঁধে মাঠে ঝাঁপিয়ে পড়বে’। জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা সদস্য আলহাজ্ব শফিকুর রহমানের প্রথমা কন্যার জামাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.