ঈদগাঁওতে বর পক্ষের খাবারে মাংস কম দেয়ায় কনে পক্ষের উপর হামলা

ঈদগাঁওতে বর পক্ষের খাবারে মাংস কম দেয়ায় কনে পক্ষের উপর হামলা!

সেলিম উদ্দীন,কক্সবাজার।

কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে বিয়ের আসরে মাংস কম দেয়ায় কনের পক্ষের লোকজনের উপর হামলা চালিয়েছে বর পক্ষ। এসময় চেয়ার,টেবিল, বাটি,প্লেট ও গ্লাস ভাংচুর করা হয়েছে। ভাংচুরে বাঁধা দেওয়ায় বিয়ের ক্লাবের ম্যানেজারকে চুরিকাঘাতও করা হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। ১৭ অক্টোবর বুধবার বিকাল ৪ টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে ঈদগাঁও আলমাছিয়া সড়কে অবস্থিত প্রিন্স অব ঈদগাহ কমিউনিটি হলে।সরেজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কনে পক্ষের লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, সদরের খুরুস্কুল পেশকার পাড়ার আবদু শুক্কুরের ছেলে আলমগীরের সাথে পার্শ্ববর্তী চৌফলদন্ডী উত্তর পাড়ার প্রবাসী আমির হামজার মেয়ে উম্মে সাদিয়ার বিয়ের দিনক্ষণ টিক করা হয়। যথারীতি বিয়ের দিন বর পক্ষের লোকজন বধুর জন্য উক্ত ক্লাবে আসে।সামাজিক নিয়ম অনুসারে বর পক্ষের লোকজন খাওয়ার জন্য বসে।কনে পক্ষের নির্ধারিত বৈরাত ৩শ জন আসার কথা থাকলেও এসেছে ৫শ জন।এর মধ্যে তরকারী সংকট পড়ায় বর পক্ষের লোকজন তরকারী বাটি ছুড়ে মারলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।এরই মধ্যে উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি সৃষ্টি হলে ক্লাবটির চেয়ার টেবিল ভাংচুর চালায়। এসময় বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করলে ক্লাবের ম্যানেজার আরফাতকে ছুরিকাঘাত করে।তাৎক্ষণিক বর পক্ষের লোকজন পালিয়ে যায় বলে জানান কনের আত্মীয় আবুল হোসেন।
খবর পেয়ে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই শাহাজ উদ্দীন, এএসআই লিটনুর রহমান জয় ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।এ ঘটনার সময় নববধু স্থানীয় একটি পার্লারে রয়েছে। সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত বরসহ তার কয়েকজন স্বজন কমিউনিটি ক্লাবে অবস্থান করছে।
বর আলমগীরের বাবা আবদু শুক্কুর জানান, তুচ্ছ বিষয় নিয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। বউ ঘরে তুলার প্রক্রিয়া চলছে। ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এ,এস,আই লিটনুর রহমান জয় জানান খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি। বাকীটা তারা উভয় পক্ষ সিদ্ধান্ত নিবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.