ওসি ফেরদৌসই পাল্টে দিলো দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়া

এ.কে.এম রিদওয়ানুল করিম :
কক্সবাজারের কুতুবদিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদৌস যোগদানের এক বছরেই পাল্টে দিয়েছেন পুরো দ্বীপ উপজেলার চিত্র। ‘পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ’ এ স্লোগানকে বাস্তবে রূপ দিয়ে দ্বীপের আইন শৃংখলা রক্ষার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি, সামাজিক অবক্ষয়, যৌতুক ও বাল্য বিয়ে রোধ, মাদক ও জঙ্গীবাদ বিরোধী জনমত সৃষ্টিমূলক কাজে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন সর্বদা।

ফলে খুব অল্প সময়েই সাধারণ মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি।

দ্বীপের শিক্ষার্থীদের মাঝে আধুনিক শিক্ষার আলো ছড়াতে কুতুবদিয়া হাই স্কুল সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে খুলেছেন ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ ক্লাব।

এছাড়াও গত ডিসেম্বরে সফলতার সাথে পালন করেছেন কুতুবদিয়া থানার শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠান। তাঁর একান্ত প্রচেষ্টায় গুণীজনদের সম্মানে গত রমজানে প্রথমবারের মত ইফতার মাহফিলের আয়োজন করে কুতুবদিয়া থানা।

পুলিশ বাহিনীতে অনেক সৎ ও নিষ্ঠাবান কর্মকর্তা রয়েছেন। যারা জীবন বাঁজি রেখে সততার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। তাদেরই একজন কুতুবদিয়া থানার বর্তমান ওসি।

জাতিসংঘের দারফুর মিশন শেষে গত বছরের ১৩ আগষ্ট কুতুবদিয়া থানার ৩৫তম অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিসেবে যোগদান করেন তিনি।

এরপরই মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কঠিন চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেন। তাঁর নির্দেশে উপ-পরিদর্শক (এসআই) জয়নাল আবেদীনসহ সাহসী অফিসারদের নেতৃত্বে সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে কুতুবদিয়া উপকূলের কুখ্যাত জলদস্যু রমিজ, সালে আহম্মদ, ইসহাক মেম্বার, জসিম, দিদারুল ইসলাম পুতুইক্যা, মিজান, মানিক সহ প্রায় অর্ধশতাধিক বাঘা বাঘা সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় কুতুবদিয়া থানা পুলিশ।

উদ্ধার করা হয় বিপুল পরিমান আগ্নেয়াস্ত্র। কুতুবদিয়া মাদক পাচারের অন্যতম ট্রানজিট পয়েন্ট হলেও ২০১৬ সালে থানায় মাদক মামলা ছিল ৩টি গত এক বছরে প্রায় ৩৭টি মামলা করে প্রায় ২ শতাধিক মাদক ব্যবসায়ীকে আইনের আওতায় আনা হয়েছে।

তার মধ্যে ধূরুং কাঁচার ইসমাইল, কৈয়ারবিলের দিদার, আলী আকবর ডেইলের শাহ্ আলম মগ ডেইলের আখতার হোছাইন সহ প্রায় দেড় শতাধিক চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পরিশ্রমী ও সাহসী এ পুলিশ অফিসার ২০১৭ সালের প্রশংসনীয় ও ভাল কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ বাংলাদেশ পুলিশ বিভাগ হতে “আইজিপিএস ব্যাজ” অর্জন করেন।

দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি কুতুবদিয়ার সভাপতি ও কুতুবদিয়া সরকারি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক আবদুস ছাত্তার জানান, ‘একজন মেধাবী পরিশ্রমী আর সাহসী পুলিশ অফিসার দিদারুল ফেরদৌস।

বিগত এক বছরে কুতুবদিয়ায় মাদক এবং সন্ত্রাস দমনে তিনি ব্যাপক ভূমিকা রেখেছেন। তার মত সুদক্ষ , চৌকস পুলিশ অফিসারই কুতুবদিয়ায় প্রয়োজন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.