অসুস্থতা তার নিত্যসঙ্গী : অ্যাটর্নি জেনারেল

কক্স টিভি ডেস্ক:

অসুস্থতা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিত্যসঙ্গী এবং এই অসুস্থতা নিয়েই তিনি প্রধানমন্ত্রীত্ব করেছেন বলে আদালতে মন্তব্য করেছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে কুমিল্লার এক মামলায় খালেদা জিয়া জামিন চাইলে এর বিরোধিতা করে আপিল বিভাগকে এসব কথা বলেন অ্যাটর্নি জেনারেল। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির পূর্ণাঙ্গ আপিল বেঞ্চে আজ বৃহস্পতিবার এই শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানির পর জামিন বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী রোববার দিন ধার্য করেন সর্বোচ্চ আদালত।
শুনানিতে মাহবুবে আলম বলেন, এখন যে ধরনের অসুস্থতার কথা বলে তার (খালেদা জিয়ার) জামিন চাওয়া হচ্ছে, এমন অসুস্থতা তার নিত্যসঙ্গী। এই অসুস্থতা নিয়েই তিনি প্রধানমন্ত্রীত্ব করেছেন।
কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে বাসে পেট্রলবোমা মেরে নাশকতা করার অভিযোগের মামলায় খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন আবেদন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিল আবেদনের শুনানিতে আদালতের কাছে এ যুক্তি তুলে ধরেন অ্যাটর্নি জেনারেল। আদালতে আজ রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আর খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন মওদুদ আহমেদ, খন্দকার মাহবুব হোসেন, এজে মোহাম্মদ আলী, জয়নুল আবেদীন ও মাহবুব উদ্দিন। গত ৭ আগস্ট চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী আবেদনটি আজ বৃহস্পতিবার পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠান।
আগেরদিন গত সোমবার বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এসএম মজিবুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জামিন দেন।
গত ১ জুলাই এ মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার দেখিয়ে জামিন আবেদনের শুনানির জন্য ৮ আগস্ট বহাল রাখেন কুমিল্লার আদালত।
এরপর খালেদা হাইকোর্টে এ মামলায় জামিন আবেদন করেন।
ওই আবেদনের পর কুমিল্লার আদালতে খালেদার জামিন আবেদন গত ২৬ জুলাইয়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। এ আদেশ অনুসারে কুমিল্লার আদালত তা নিষ্পত্তি করে খালেদার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন। এর বিরুদ্ধে তিনি হাইকোর্টে আবেদন করলে সোমবার আদালত তার ছয় মাসের জামিন মঞ্জুর করেন।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ড নিয়ে গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে রাজধানীর পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডে পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.