লামার বনপুর বাজারে দুর্ধর্ষ ডাকাতি ও মাতামুহুরী কলেজে চুরি

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধি, ০৬ জুলাই’ ২০১৮ইং
———————————–
বান্দরবানের লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের বনপুর বাজারে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় এক দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এসময় ১৫/২০ জনের একটি সংঘবদ্ধ সশস্ত্র ডাকাতদল বাজারের সব সওদাগরদের এক রুমে আটক করে ২৫টি দোকানের মালামাল, নগদ ২ লাখ ৪ হাজার টাকা ও ২৫/৩০টি মোবাইল ফোন লুট করে নিয়ে যায়।
বনপুর বাজারের কয়েকজন ব্যবসায়ী জানায়, রাত সাড়ে ১২টার দিকে ইউনিফর্ম পরা সশস্ত্র ১৫/২০ জনের একটি ডাকাত দল বনপুর বাজারে হামলা চালায়। ডাকাতরা প্রথমে দোকানের সওদাগরদের একটি রুমে অস্ত্রের মুখে জিম্মি রেখে সব দোকানে লুটপাট করে। ডাকাতরা নগদ ২ লক্ষ ৪ হাজার টাকা ও ২৫/৩০টি মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। ব্যবসায়ীরা আরো বলেন, ডাকাতির ঘটনাটি সাথে সাথে বাজার সংলগ্ন বিজিবি ক্যাম্পকে জানানো হলেও তারা তড়িৎ কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। লুট করে নিয়ে যাওয়ার পরে তারা আসে। সংঘবদ্ধ সশস্ত্র ডাকাত দলের সদস্যরা অধিকাংশ পাহাড়ি ও কয়েকজন বাঙ্গালী ছিল বলে জানায় দোকানদাররা। ধারনা করা হচ্ছে, ডাকাতরা পাহাড়ি সন্ত্রাসী কোন গ্রুপের সদস্য হতে পারে।
ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান জাকের হোসেন মজুমদার বলেন, সশস্ত্র সন্ত্রাসী গ্রুপ বনপুর বাজারে গভীর রাতে ডাকাতি করে। ঘটনা জানার সাথে সাথে পুলিশকে অবহিত করি। দূর্গম এলাকা হওয়ায় মুহুর্তে কোন পদক্ষেপ নেয়া সম্ভব হয়নি।
অপরদিকে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টায় লামা মাতামুহুরী ডিগ্রী কলেজের দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটে। নৈশপ্রহরী ও অফিস সহায়ক দুইজনকে একটি রুমে বাহির থেকে তালাবদ্ধ করে ৬/৭ জনের একটি গ্রুপ অধ্যক্ষ ও অফিস সহকারীর কক্ষ হতে ৪ লক্ষাধিক টাকা লুট করে।
নৈশপ্রহরী মো. আলমগীর (৫০) ও অফিস সহায়ক আবুল হাসেম (৩০) জানান, আমরা কলেজের শিক্ষক হলরুমে ছিলাম। রাত সাড়ে ৩টার দিকে শব্দ শুনতে পাই। উঠে দরজা খুলতে গেলে দেখি বাহির হতে দরজা আটকানো রয়েছে। আমরা চিৎকার করি ও দ্রুত ফোনে অধ্যক্ষকে বিষয়টি জানায়। অধ্যক্ষ আসার আগে চোরের দল দুইটি রুম হতে আলমারি ভেঙ্গে টাকা পয়সা লুট করে নিয়ে যায়। জানালা দিয়ে আমরা ৬ জনকে দেখতে পাই। চোরের দল বাহিরের বিদ্যুতের লাইট বন্ধ করে দেয়ায় আমরা তাদের চিনতে পারিনি।
মাতামুহুরী ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বলেন, আমার রুম ও অফিস সহকারীর রুম হতে দরজার তালা ও লক ভেঙ্গে বেশ কয়েকটি আলমারি ও ড্রয়ার থেকে চোরেরা ফরম বিক্রির ও পরীক্ষা পরিচালনার ৪ লক্ষাধিক টাকা নিয়ে গেছে। রাতেই বিষয়টি লামা থানাকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।
বনপুর বাজারে ডাকাতি ও মাতামুহুরী ডিগ্রী কলেজে চুরির বিষয়ে লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, বনপুর বাজারের ডাকাতির বিষয়টি কোন পাহাড়ি সন্ত্রাসী গ্রুপের কাজ হতে পারে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে ও দোষীদের খুঁজে বের করতে কাজ করছে পুলিশ। মাতামুহুরী ডিগ্রি কলেজের চুরির ঘটনা খবর পাওয়া মাত্র পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। কলেজ কর্তৃপক্ষের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ছবির ক্যাপশনঃ ১. লামা (বান্দরবান) লামা মাতামুহুরী ডিগ্রী কলেজ।
২,৩ ও ৪. লামা (বান্দরবান) মাতামুহুরী কলেজের অফিস রুমে চুরির আলামত সমূহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.