ইয়াবাসহ গ্রেফতার নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের একাংশের প্রতিবাদ ও প্রতিবেদকের বক্তব্য

গতকাল ৭জুন’১৮ইং স্থানীয় ও আঞ্চলিক বিভিন্ন পত্রিকা, অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “চকরিয়ার মাদক স¤্রাট বাবর ও রোমান ইয়াবাসহ লামায় গ্রেফতার” শীর্ষক সংবাদের একাংশ আমার দৃষ্টি গোচর হয়েছে। সংবাদের একাংশে আমাকে জড়িয়ে সম্পূর্ণ মিথ্যা ভিত্তিহীন কাল্পনিক ও বানোয়াট তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে। যার আদৌ কোন সত্যতা নাই। যাতে পরিকল্পিত মিথ্যার আশ্রয় নেওয়া হয়েছে। মূলত: লামা থানা পুলিশের হাতে আটক চকরিয়া পৌরসভা ২নং ওয়ার্ডের হালকাকারা গ্রামের সিরাজুল হকের পুত্র লুৎফুর রহমান রোমান পারিবারিকভাবে আমার আত্মীয় হলেও তার সাথে আমার পরিবারের দীর্ঘ বহু বছর ধরে সর্ম্পক নাই। কিন্তু সংবাদের একাংশে আমাকে পারিবারিক ও সামাজিকভাবে ঘায়েল করার জন্য পরিকল্পিত মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছে। যা আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করা ছাড়া আর কিছুই নয়। তাই আমি উক্ত সংবাদে আমার অংশের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট কাউকে আমার অংশে মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ নিয়ে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহবান জানাচ্ছি। প্রতিবাদকারী- মো: মিনহাজ উদ্দিন, পিতা সরওয়ার আলম (স্বত্ত¡াধিকারী-সরওয়ার এন্ড সন্স,চকরিয়া) হালকাকারা,২নং ওয়ার্ড চকরিয়া পৌরসভা,কক্সবাজার।
প্রতিবেদকের বক্তব্য: প্রকাশিত সংবাদে পুলিশের হাতে ধৃত উল্লেখিত লুৎফুর রহমান রোমানের অর্থযোগানদাতা হিসেবে বিষয়ে সরওয়ার এন্ড সন্স (সার ডিলার) সরওয়ার আলমের পুত্র মিনহাজ উদ্দিনকে বলা হলেও সরে জমিনে যাছাইকালে অর্থযোগানদাতা সংক্রান্ত কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি। সমাজের কথিত কিছু খারাপ প্রকৃতির লোক মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদের একাংশে একজন শিক্ষিত, সম্মানীত, সামাজিক ও স্বনামধন্য ব্যবসায়ীর নামটি পূর্বশত্রæতা মূলক প্রকাশ করিয়েছে। তাই সংবাদের একাংশ যথাযথ ছিলনা বিধায় উক্ত অংশ প্রত্যাহার করা হল এবং ভূল সংবাদের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদক দু:খিত। মূলত: পুলিশের হাতে ধৃত রোমান, চকরিয়ার প্রতিষ্টিত ব্যবসায়ী ছিদ্দিক ফিলিং ষ্টেশনের স্বত্ত¡াধীকারী মনছুর আলম ছিদ্দিকী ও নজরুল ইসলাম ছিদ্দিকীর আপন ভাতিজা।##

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.