টেকনাফে পৌর কাউন্সিলর একরামুল হক নিহত হওয়ার ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি পরিবারের

1527760663_5b0fc7176ea0e_33990123_1869340020025777_8847964544832634880_n.jpg

অনলাইন ডেস্ক : টেকনাফে র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে পৌর কাউন্সিলর একরামুল হক নিহত হওয়ার ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছে তার পরিবার।
বৃহস্পতবিার দুপুরে কক্সবাজার প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে একরামুলের স্ত্রী আয়েশা খাতুন জানান, ডিজিএফআই জমি সংক্রান্ত বিষয়ের কথা বলে তার স্বামীকে ডেকে নিয়ে যায় এবং পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে। একরামুল হক ইয়াবা ব্যবসায় সংশ্লিষ্ট নন, তাদের অর্থনৈতিক অবস্থাও খারাপ ।
এ সংবাদ সম্মেলনে নিহতের ২ কন্যা ও ভাই উপস্থিত ছিলেন।
গত শনিবার দিনগত রাত সাড়ে ১২ টায় কক্সবাজার- টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কে নোয়াখালিয়াপাড়ায় র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে নিহত হন টেকনাফ পৌরসভার কাউন্সিলর একরামুল হক। তিনি টেকনাফ পৌরসভার কায়ুকখালীপাড়ার মৃত আবদুস সাত্তারের ছেলে এবং একই ওয়ার্ডের পর পর তিনবার নির্বাচিত কাউন্সিলর। টেকনাফ উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও টেকনাফ বাস ষ্টেশন ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি এবং টেকনাফ হাইয়েছ মাইক্রো শ্রমিক ইউনিয়ন এর সাবেক আহবায়ক ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.