প্রতিদিন ১০ হাজার গাছ কাটছে রোহিঙ্গারা

নিজস্ব প্রতিবেদক-কক্স টিভি: মিয়ানমার বাহিনীর নির্যাতনে পালিয়ে আসা সাড়ে পাঁচ লাখ রোহিঙ্গার বসতি এখন বাংলাদেশে। তারা প্রতিদিন জালানী কাঠ হিসেবে উখিয়া-টেকনাফের ১০ হাজার গাছ গেটে সাবাড় করছে। এ পর্যন্ত অন্তত ১০ লাখ গাছ কেটে ফেলা হয়েছে বলে জানিয়েছে বন-বিভাগ।

বন-বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালী, থ্যাংখালী, বালুখালী, কুতুপালং, টেকনাফের লেদা শরণার্থী ক্যাম্পের আশেপাশের বনাঞ্চল কেটে জ¦ালানী কাঠ হিসেবে ব্যবহার করছে রোহিঙ্গারা। পাশাপাশি বনবিভাগের রোপনকৃত গাছ কেটে ফেলছে তারা। তাদের কোনভাবেই নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না বলেও জানান বনবিভাগের কর্মকর্তারা।

এদিকে নির্ভযোগ্য একটি সুত্র বলছে, বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের প্রায় এক লাখ পরিবার জ¦ালানী কাঠ হিসেবে সরকারী গাছ কর্তন করছে প্রতিনিয়ত। বিষয়টি এখনি যদি কোন ধরণের সমাধানে আনা না হয় তাহলে বড় ধরণের ক্ষতিরমুখে পড়বে সরকার। দিন যতোই যাচ্ছে রোহিঙ্গাদের সরকারী গাছ কর্তন বাড়ছে।

কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের বন কর্মকর্তা আলী কবির জানান, সম্প্রতি গাছ কেটে নিয়ে ফেরার পথে কয়েকজন রোহিঙ্গাকে বিভিন্নভাবে শাস্তি দেওয়া হয়। এরপরও তারা গাছ কর্তন বন্ধ করছে না। প্রতিদিন তারা গাছ কর্তন করে জ¦ালানী কাঠ হিসেবে বাজারেও বিক্রি করছে। সব বিষয়গুলো মাথায় বনবিভাগ গাছ কর্তন বন্ধে কাজ করে যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, জাতিসংঘের হিসেব অনুযায়ী ২৪ আগষ্ট থেকে এ পর্যন্ত বাংলাদেশে রোহিঙ্গা এসেছে সাড়ে ৬ লাখের বেশী। ট্রলার দিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসার সময় অন্তত দুই শতাধিক রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশুর মৃত্যু হযেছে। এরপর থেকে রোহিঙ্গাদের মানবিক দৃষ্টিতে সরকার আশ্রয় দিলেও কুঠনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে স্বদেশে ফেরত পাঠানোর চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.