মিথ্যা মামলা দিয়ে বৈধ মালিকানাধীন ও ভোগ দখলীয় জমি জবর দখলের চেষ্টা

চকরিয়ায় সংবাদ সম্মেলনে এক নিরীহ পরিবারের অভিযোগ

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় এক নিরীহ ও দরিদ্র পরিবারের পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত বৈধ মালিকানাধীন ও দীর্ঘদিনের ভোগ দখলীয় জমি জোর পূর্বক জবর দখলে নিতে থানায় মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রাণী করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে গতকাল ১০ মে’১৮ইং সন্ধ্যায় চকরিয়া প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন চকরিয়া উপজেলার সাহারবিল ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড রামপুর শাহপুরা গ্রামের মরহুম গোলাম ছোবহানের পুত্র জয়নাল আবদীন ড্রাইভার গং। এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন হাজী মোহাম্মদ ইছহাক, মনোয়ার আলম, বেলাল উদ্দিন, রোকেয়া বেগমসহ পরিবারের সদস্যরা। সংবাদ সম্মেলনে জয়নাল আবদীন অভিযোগ করেন, চকরিয়া উপজেলার রামপুর মৌজার বিএস খতিয়ান নং ২৩৮ ও ২১৯ বিএস দাগ নং ৮১২ আমার পিতা গোলাম ছোবহাব ও জৈঠা তৈয়ব গোলালের নামীয় জমি সকল ওয়ারিশরা শান্তিপূর্ণভাবে ভোগ দখলে রয়েছি। কিন্তু আমার জৈঠাতো ভাই আক্তার আহমদ তাদের প্রাপ্য জমির অতিরিক্ত অংশ অবৈধভাবে জবর দখলে নিতে ষড়যন্ত্র শুরু করে। এমনকি আক্তার আহমদের ছেলে আবু সাঈদ লিটন সম্পূর্ণ প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে আমার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে থানায় একটি মিথ্যা মামলা (নং জিআর ১৯৪/১৮) দেয়ার পর বিজ্ঞ আদালত থেকে অধিকাংশ আসামীকে জামিন নিয়েছি। এরপরও ক্ষান্ত হয়নি মিথ্যার আশ্রয় নেয়া লিটন গং। আমাদের ফাঁসাতে নতুন করে থানায় সাজানো জি.ডি (নং ১১৮৬) দায়ের করেছেন। ওই জিডিতে আমরা তার পরিবারের সদস্যদের অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর কথা বলেছে। অথচ: অস্ত্র কি জিনিস আমরা চিনিওনা। বাস্তবতার আলোকে আমার পরিবারের সদস্যদের অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর জন্য আমাদের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত এ জিডি’টি করেছে। হয়তোবা আবু সাঈদ লিটন গংয়ের হাতে কোন অবৈধ অস্ত্র মজুদ থাকতে পারে। যা তাদেরকে ধরে এনে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করলে আসল রহস্য বের হয়ে আসবে। সংবাদ সম্মেলনে জয়নাল আবদীন জনু আরো অভিযোগ করেন, মামলার উল্লেখিত ঘটনায় আবু ছাদেক রিপনের স্ত্রী নাদিয়া সোলতানা রুমা (২৪)কে মারধর করে আহত করা এবং তাকে অন্ত:স্বত্ত¡া দেখিয়ে বাচ্ছা নষ্ট করে ফেলার কথা বলা হয়েছে। অথচ: বিগত ৬বছর ধরে তার বিয়ে হলেও এখনো পযর্ন্ত কোন সন্তান জন্ম হয়নি। মূলত: আবু সাঈদ লিটন, ইমরানুল ইসলাম, আক্তার আহমদ, জমিরুল ইসলাম খোকন গং আমাদেরকে মামলায় ঘায়েল করার জন্য মিথ্যা মামলার আর্জিতে বানোয়াট ব্যাখ্য ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়াও মামলার আর্জিতে উল্লেখিত কোন ঘটনায় সঠিক নয়। এনিয়ে সর্বশেষ আমরা বাদী হয়ে গত ৯মে’১৮ইং থানায় সাধারণ ডায়েরী (নং ৮১০) দায়ের করেছি। এতে তারা অস্ত্র দিয়ে আমার পরিবারের সদস্যদেরকে ফাঁসানোসহ হয়রাণী চেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে। পরিশেষ ষড়যন্ত্রকারী ও মিথ্যা মামলা দায়েরকারীদের কাছ থেকে মুক্তি পেতে বিজ্ঞ আদালত, প্রশাসন, এলাকাবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে ন্যায় বিচার কামনা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.