রাষ্ট্রপতি হিসেবে আবদুল হামিদের দ্বিতীয় মেয়াদের শপথ গ্রহণ

রাষ্ট্রপতি হিসেবে আবদুল হামিদের দ্বিতীয় মেয়াদের শপথ গ্রহণঢাকা: রাষ্ট্রপতি এম আবদুল হামিদ দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন। রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদিন জানান, বঙ্গভবনে এ শপথ সম্পন্ন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সাড়ে সাতটায় জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী বঙ্গভবনের দরবার হলে তাকে শপথবাক্য পাঠ করান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, প্রধান বিচারপতি, দেশের সাবেক রাষ্ট্রপতিগণ, বিচারকগণ, মন্ত্রিসভার সদস্যবর্গ, সংসদ সদস্যগণ, সিনিয়র রাজনীতিকগণ, কূটনীতিকবর্গ এবং অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

আবদুল হামিদ এর আগে ২০১৩ সালের ২২ এপ্রিল বাংলাদেশের ২০তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত এবং ২৪ এপ্রিল শপথগ্রহণ করেন।

তার আগে রাষ্ট্রপতির অনুপস্থিতিতে তিনি ২০১৩ সলের ১৪ মার্চ ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এ সময় তৎকালীন রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন ছিলেন। জিল্লুর রহমানের মৃত্যুর পর তিনি ২০১৩ সালের ২০ মার্চ ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি হন।

আবদুল হামিদ দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে এবং দ্বিতীয়বারের মতো বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ নিয়ে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করলেন।

আরো পড়ুন…

রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদকে আসামে সংবর্ধনা
গৌহাটি: রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামের রাজধানী গৌহাটি পৌঁছেছেন।

বৃহস্পতিবার গৌহাটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছালে রাষ্ট্রপতিকে লালগালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ নয়াদিল্লিতে সোলার সামিট-২০১৮ এবং আসামে ‘ফাউন্ডিং কনফারেন্স অব দ্য ইন্টারন্যাশনাল সোলার এলায়েন্সে (আইএসএ)’ যোগ দিতে চারদিনের সফরের অংশ হিসেবে গৌহাটি পৌঁছান।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট রাষ্ট্রপতি ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে স্থানীয় সময় বেলা ১টা ৪৪ মিনিটে গৌহাটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

বিমানবন্দরে আসামের গভর্নর জগদীশ মুখ, ঢাকায় ভারতের হাইকমিশনার, নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার এবং গৌহাটিতে বাংলাদেশ হাইকমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা তাঁকে স্বাগত জানান।

এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুর ১টা ৩২ মিনিটে হযরত শাহ্জালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে সফরসঙ্গীদের নিয়ে তিনি গৌহাটির উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন।

রাষ্ট্রপতি আসামের ভায়াভন্তের তাজ-এ অবস্থান করবেন। আসামের গভর্নর এবং আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোওয়াল সেখানে তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

আসামের গভর্নর বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সৌজন্যে হোটেল রেডিসনে নৈশভোজের আয়োজন করবেন।

রাষ্ট্রপতি শুক্রবার সকালে ভারতের বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টারযোগে বালাতের উদ্দেশে গৌহাটি ত্যাগ করবেন। বিকেলে তিনি শিলং ও লাবনে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বাসভবন পরিদর্শন করবেন।

রাষ্ট্রপতি হামিদ ভারতের মেঘালয় রাজ্যের বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করবেন, যেখানে তিনি একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় অবস্থান করেছিলেন।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালে মুক্তিবাহিনীর (মুজিব বাহিনী) একজন সাব-সেক্টর কমান্ডার হিসেবে আসাম ও মেঘালয়ে আবদুল হামিদের অনেক স্মৃতি রয়েছে।

আগামী শনিবার রাষ্ট্রপতি নয়াদিল্লির নাট ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছাবেন। পরে তার সৌজন্যে ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ রাষ্ট্রপতি ভবনে নৈশভোজের আয়োজন করবেন।

পরের দিন সকালে আবদুল হামিদ নয়াদিল্লির প্রেসিডেন্সিয়াল বিল্ডিংয়ের সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে অনুষ্ঠিতব্য আন্তর্জাতিক সৌর জোটের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। কর্মসূচি অনুযায়ী, তিনি আইএসএ শীর্ষ সম্মেলন ২০১৮-এর প্লেনারি সেশনে ভাষণ দেবেন।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি বেলা দেড়টার দিকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে মধ্যাহ্ন ভোজে যোগ দেবেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আগামী ১২ মার্চ দেশে ফিরবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.