শিশুধর্ষণে মৃত্যুদণ্ডের অধ্যাদেশে সই করলেন ভারতের রাষ্ট্রপতি

ভারতে শিশু ধর্ষণকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড। এ বিষয়ক একটি অধ্যাদেশে সই করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। এর ফলে বিলটি আজ থেকে আইনে পরিণত হলো।

১২ বছরের কমবয়সী শিশুরা ধর্ষণের শিকার হলে ধর্ষকদের ফাঁসি অবধারিত। এছাড়া ১৬ বছর পর্যন্ত নাবালিকা শিশুদের ক্ষেত্রে অপরাধীর হবে কঠোর শাস্তি। ধর্ষণের ক্ষেত্রে ন্যূণতম সাজা ৭ বছর থেকে বাড়িয়ে ১০ বছর করা হয়েছে। শাস্তি সর্বোচ্চ যাবজ্জীবন পর্যন্ত হতে পারে।

শনিবারই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতিতে প্রস্তাবটি সর্বসম্মতিতে পাস হয়। সংশোধিত ফৌজদারি আইন- ২০১৮ অনুসারে এসব মামলা পরিচালনার ক্ষেত্রে গঠিত হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল। দু’মাসের মধ্যে তদন্ত, বিচার প্রক্রিয়া শেষ করে শুনানো হবে রায়। সব থানাগুলোয় দেয়া হবে বিশেষ ফরেনসিক কিটস।

এছাড়া ভারতীয় দণ্ডবিধি, ফৌজদারি কার্যবিধি, সাক্ষ্যপ্রমাণ আইন এবং শিশু যৌন নির্যাতন প্রতিরোধ আইন- ২০১২ সংস্কারেরর অধ্যাদেশ অনুমোদিত হয় মন্ত্রিসভায়।

২০১৬ সালে ৪০ হাজারের বেশি ধর্ষণের ঘটনায় মামলা করা হয়; যার ৪০ ভাগই ছিলো শিশু।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.