১৮৭ নারী ধর্ষণের শিকার, ক্রসফায়ারে নিহত ৪৬

আসকঢাকা: সারা দেশে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত তিন মাসে দেশে ১৮৭ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। একই সময়ে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হেফাজতে ও ক্রসফায়ারে ৪৬ জন ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

সারা দেশে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত তিন মাসে ১৮৭ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এদের মধ্যে ধর্ষণের পর ১৯ নারীকে হত্যা করা হয়েছে। ২জন নারী ধর্ষণের পর আত্মহত্যা করেছেন। এছাড়া ধর্ষণের চেষ্টা চালানো হয়েছে আরো ২১ নারীর উপর।

শনিবার মানবাধিকার সংস্থা আইন ও সালিশ কেন্দ্রের (আসক) ত্রৈমাসিক পরিসংখ্যানে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এর বাইরে যৌন হয়রানি ও সহিংসতার শিকার হয়েছেন ২৭ জন নারী।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ধর্ষিতা নারীদের মধ্যে ধর্ষণের পর ১৯ জনকে হত্যা করা হয়েছে। ২ জন নারী ধর্ষণের পর আত্মহত্যা করেছেন। এছাড়া ধর্ষণের চেষ্টা চালানো হয়েছে আরো ২১ নারীর উপর। এর বাইরে যৌন হয়রানি ও সহিংসতার শিকার হয়েছেন ২৭ জন নারী।

এ সময় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হেফাজতে ও ক্রসফায়ারে ৪৬ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে র‌্যাবের ক্রসফায়ারে ১৬ জন, পুলিশের ক্রসফায়ারে ১৯জন, ডিবি পুলিশের ক্রসফায়ারে ৫জন নৌ-পুলিশের ক্রসফায়ারে ১জন, বিজিবির ক্রসফায়ারে ১জন, ডিবি পুলিশের নির্যাতনে ১জন ও পুলিশের গুলিতে ২জন মারা গেছেন।

পাশাপাশি কারা হেফাজতে তিন মাসে মারা গেছেন ২৫ জন। এদের মধ্যে ১১জন কয়েদি ও ১৪জন হাজতি। ১২ মার্চ কারা হেফাজতে মারা যান ছাত্রদল নেতা জাকির হোসেন। পুলিশের নির্যাতনে মৃত্যু হয়েছে বলে তার পরিবার অভিযোগ করেছেন।

এ সময় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হেফাজতে ও ক্রসফায়ারে ৪৬ জন ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে র্যাবের ক্রসফায়ারে ১৬ জন, পুলিশের ক্রসফায়ারে ১৯জন, ডিবি পুলিশের ক্রসফায়ারে ৫জন নৌ-পুলিশের ক্রসফায়ারে ১জন, বিজিবির ক্রসফায়ারে ১জন, ডিবি পুলিশের নির্যাতনে ১জন ও পুলিশের গুলিতে ২জন মারা গেছেন।

পাশাপাশি কারা হেফাজতে তিন মাসে মারা গেছেন ২৫ জন। এদের মধ্যে ১১জন কয়েদি ও ১৪জন হাজতি। ১২ মার্চ কারা হেফাজতে মারা যান ছাত্রদল নেতা জাকির হোসেন। পুলিশের নির্যাতনে মৃত্যু হয়েছে বলে তার পরিবার অভিযোগ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.