চকরিয়া থানা রাস্তার মাথায় আদালতের আদেশ লঙ্ঘনের মাধ্যমে অবৈধস্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ

চকরিয়া প্রতিনিধি


কক্সবাজার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের নিষেধাজ্ঞা আদেশ লঙ্ঘনের মাধ্যমে চকরিয়া পৌরশহরের থানা রাস্তার মাথা এলাকায় বিরোধীয় জায়গায় দিনদুপুরে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বাদিপক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ১০ জানুয়ারী আদালতের বিচারক আদেশে বিরোধীয় ওই জায়গায় স্থিতবস্থা বজায় রাখতে চকরিয়া থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। এরপর বিরোধীয় ওই জায়গায় স্থাপনা নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখেন অভিযুক্ত বিবাদিরা। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে অভিযুক্তরা মামলার বাদি ও জায়গার মালিকের অনুপস্থিতির সুযোগে মামলার বিবাদিরা বর্তমানে আদালতের আদেশ অমান্য করে থানা পুলিশের অগোচরে সেখানে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এদিকে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখতে জায়গার মালিক জয়নাল আবেদিনের অনুপস্থিতিতে তাঁর স্ত্রী বিবাদিপক্ষকে বাঁধা দিলে উল্টো তাকে এবং পরিবার সদস্যদেরকে অভিযুক্তরা হত্যার হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন বাদি জয়নাল আবেদিন।

মামলার বাদি চকরিয়া থানা রাস্তার মাথা এলাকার ( হাসপাতাল পাড়া গ্রামের বাসিন্দা) মৃত সুলতান আহমদের ছেলে জয়নাল আবেদিন জানান, চিরিঙ্গা মৌজার বিএস ২৯৬ নং খতিয়ানের বিএস ৪০৪ দাগের ৮ শতক জায়গার উপর নির্মিত দোকানঘর ও বসতভিটা বাদির পৈত্রিক সম্পত্তি। এসব জায়গা বেশ কিছুদিন ধরে জোরপুর্বক জবরদখলের অপচেষ্ঠা চালাচ্ছে অভিযুক্তরা। ইতোমধ্যে তাঁরা জায়গা দখলে নিয়ে সেখানে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করতে ইট, বালু মজুদ করেছে। ঘটনাটি জানতে পেরে বাদি বাঁধা দিতে চাইলেও অভিযুক্তরা তাকে নানাভাবে হুমকি ধমকি দেয়। এ অবস্থার কারনে তিনি নিরুপায় হয়ে গত ১০ জানুয়ারী কক্সবাজারস্থ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের একটি (এমআর মামলা নং ১৪/১৮) মামলা রুজু করেন। মামলার প্রেক্ষিতে আদালত বিরোধীয় ওই জায়গায় কোন ধরণের স্থাপনা নির্মাণ না করতে উভয়পক্ষকে নির্দেশ দেন। একই সাথে বিরোধীয় ওই জায়গায় আদালত ১৪৪ ধারা জারী করে তদন্ত পুর্বক প্রতিবেদন দাখিল করতে চকরিয়া উপজেলা সহকারি কমিশনারকে (ভুমি) ও ঘটনাস্থলে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য চকরিয়া থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।
মামলায় আসামি করা হয় থানা রাস্তার মাথাস্থ চকরিয়া হাসপাতাল গ্রামের আবু ছিদ্দিক, তার ছেলে ফায়ার সার্ভিসের বাবুর্চি জসিম উদ্দিন, আব্বাস উদ্দিন, আবু ছিদ্দিকের ভাই নাজিম উদ্দিন, ভরামুহুরী এলাকার আবদুর রাজ্জাক ও আবদুর রহমানসহ ৬জনকে।

মামলার বাদি জয়নাল আবেদিন জানান, বাড়িতে তাঁর অনুপস্থিতির সুযোগে অভিযুক্ত বিবাদিরা গত কয়েকদিন ধরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা আদেশ অমান্য করে সেখানে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এ ঘটনায় তাঁর স্ত্রী বাঁধা দিতে গেলে অভিযুক্তরা উল্টো তাকে ও পরিবার সদস্যদেরকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে। এমনকি আমাকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে এলাকা ছাড়া করার হুমকিও দিচ্ছে অভিযুক্তরা। এ অবস্থার কারনে বর্তমানে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে জানিয়েছেন জায়গার মালিক জয়নাল আবেদিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.