চকরিয়া হারবাং এ ইউএনওর হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ


এম.রায়হান চৌধুরী,চকরিয়া:
কক্সবাজারেরর চকরিয়ায় উপজেলায় নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমানের হস্তক্ষেপে ১৫ বৎসরের এক কিশোরীর বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।এর আগে পরিবারের লোকজন বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক করেন ৫ বৎসর বয়সী সন্তনের খথিত বাবার সাথে , সেই সাথে সকল প্রস্তুতিও সম্পন্ন করে ফেলে বর ও কনেপক্ষ। কনের বাড়িতে ১৮ ই মার্চ রবিবার বেলা ২টার দিকে উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের সাবান গাটা এলাকার ১৫ বৎসর বয়সের কিশোরীর বাল্য বিবাহ বন্ধ করেন।
উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের সাবান গাটা এলাকার আব্দুল কাদের অপ্রাপ্ত বয়স্ক কন্যা ইচমত আরা বেগম(১৫) সঙ্গে পার্সবতী এলাকার ৫ বৎসর বয়সী সন্তানের জনকের সাথে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক করা হয়। বিষয়টি জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন কে স্তানীয়রা অবহিত করলে তাৎখনিক খবরটি চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন কে জানার পর পরেই এই বিয়ে বন্ধের উদ্যোগ নেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান। বাল্যবিবাহের খবর পেয়ে রবিবার বেলা ২টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,নির্দেশে,চকরিয়া উপজেলা সহকারী কর্মকর্তা ভুমি মোঃ ইখতেয়ার উদ্দীন আরফাত সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স নিয়ে কনের বাড়িতে ছুটে যান এবং এ বাল্যবিবাহ বন্ধ করে দেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সহকারী ও ভ্রাম্যমান আদালতের পেশকার রতন কান্তি এ প্রতিবেদককে জানান,রবিবার বাল্যবিবাহ অনুষ্ঠান চলার খবর পাওয়া মাত্রই হারবাং সাবান গাটা এলাকার অপ্রাপ্ত বয়স্ক ইচমত আরা বেগমের বিয়ে বন্ধ করার নির্দেশনা দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান।এসময় বিয়ে অনুষ্টানে বাল্যবিয়ের নানা কুফল সম্পর্কে অবহিত করা হয় মেয়ের বাবাসহ পরিবার সদস্যদের।এতে বাবাসহ পরিবার সদস্যরাই উদ্যোগ নেন বিয়ে বন্ধের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.