চাঁদপুরে ম্যাজিস্ট্রেটের চোখ ফাঁকি দিতে নানা ছলনা

চাঁদপুর প্রতিনিধি ঃ

চাঁদপুরে লুকোচুরি খেলা!

এবার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে তাদের মুখোমুখি করা হলো। সড়কে বেরিয়ে পড়ার কারণ জানতে চাওয়া হলো। একজন বললেন, তার দাঁতে প্রচণ্ড ব্যথা। আরেকজনের কিছুই না। দাঁতের ব্যথার সপক্ষে তাদের সঙ্গে ছিল ব্যবস্থাপত্র ও এক্সরে রিপোর্ট। এসব একটু সতর্কভাবে দেখে নিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। তবে যুবকের কথার সঙ্গে ব্যবস্থাপত্র আর এক্সরে রিপোর্টের মিল খুঁজে পেলেন না তিনি।

তাদের কাছে জানতে চাইলেন এমন মিথ্যার আশ্রয় নিতে গেলেন কেন। কাচুমাচু করে দুজনে একসঙ্গে বললেন, আসলে সত্য কথা বলতে কী। অন্য একটা কাজে বের হয়েছি। তাই পথে যেন কেউ ঝামেলা না করে। তাই এসব সঙ্গে রেখেছি। তবে মিথ্যার আশ্রয় দেওয়া যুবকদের শেষ রক্ষা হয়নি।

চাঁদপুর জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ জানান, জেলা শহরসহ আট উপজেলায় ১৯টি ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা দায়িত্ব পালন করছেন। তাদের সহযোগিতা করছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বিজিবি, পুলিশ ও আনসার ব্যাটেলিয়নের সদস্যরা।

জেলা প্রশাসক আরো জানান, করোনার বিস্তার রোধে মানুষকে সচেতন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে দিনরাত কাজ করছেন তার সহকর্মীরা।

এদিকে, এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় এবং সরকারের বিধিনিষেধ অমান্য করায় শনিবার ১০৯ জনসহ গত ১০ দিনে সহস্রাধিক মানুষ ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে আর্থিক জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা।

অন্যদিকে, চাঁদপুরে এই পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজারের বেশি। আর মারা গেছেন ১৩০ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.