চকরিয়ায় প্রেমের টানে ৭ম শ্রেনীর ছাত্রীর পলায়ন মামলায় আসামী হলেন সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় প্রেমেরে টানে কলেজ পড়ুয়া ছাত্রের হাত ধরে পালিয়েছে ৭ম শ্রেনী পড়ুয়া একছাত্রী। আর এঘটনায় ফাঁসাতে আসামী করা হয়েছে বর্তমান এক ইউপি সদস্য ও সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যানকে। এ নিয়ে ওই এলাকার লোকজনের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।
জানাগেছে, চকরিয়া উপজেলার চিরিঙগা ইউনিয়নের সওদাগর ঘোনা গ্রামের নুরুন্নবীর কলেজপড়ুয়া ছেলে নাঈম মোহাম্মদ মাহিমের হাত ধরে চকরিয়া পৌরসভার বিনামারা এলাকার হুমাইরা জন্নাতের ৭ম শ্রেনীতে পড়ুয়া মেয়ে নুরে মোস্তারি হিমু গত ২৮ জুন পালিয়ে যায়।
স্থানীয় লোকজন জানান, মামলার বাদী হুমাইরা জন্নাতের আগের স্বামীর মেয়ে নুরে মোস্তারি হিমু। বর্তমানে তারা কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের পূর্ব কলাতলীস্থ চন্দ্রিমার মাঠ এলাকায় বসবাস করেন। সুত্রমতে, নাঈম মোহাম্মদ মাহিম ও নুরে মোস্তারি হিমু পরস্পর নিকট আত্মীয়। সেই সুবাধে দু‘জনের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক হলে গত ২৮ জুন সকাল আনুমানিক সাড়ে ৮টার দিকে দুজনই নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। এ ঘটনায় গত ৩ জুলাই নুরে মোস্তারি হিমুর মা হুমাইরা জন্নাত (৩৫) বাদী হয়ে কক্সবাজার মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রুজু করেন। এতে প্রেমিক নাঈম মোহাম্মদ মাহিম, তার মা শাহনাজ বেগম, বন্ধু জিয়া, বাদির ভগ্নিপতি রিদুয়ানুল হক ও চিরিঙ্গা ইউপির সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান, বর্তমানসহ তিনবারের ইউপি সদস্য, ইউনিয়ন পরিষদ সমিতি কর্তৃক ঘোষিত জেলার সেরা ইউপি সদস্য আলী আহমদকে আসামী করা হয়। তাকে আসামী করার খবরে ক্ষোভের সঞ্চার হয় এলাকায়।
জানতে চাইলে আলী আহমদ মেম্বার জানান, কার মেয়ে কে নিয়েছে আমি কিছুই জানিনা, মেয়েকেও চিনি না, ছেলেকেও চিনিনা। গত ৫জুলাই বাড়িতে পুলিশ হানা দিলে জানতে পারি আমার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তিনি ধারণা করেন, স্থানীয় একটি প্রতিপক্ষ ঈর্ষান্বিত হয়ে বাদীর সাথে হাত করে তাকে এ মামলায় জড়িয়েছে। ঘটনা সুষ্টু ও নিরপেক্ষ তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে আইনপ্রয়োগকারি সংস্থার দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের নিকট দাবী করেন তিনি। আলী আহমদ মেম্বারের ছেলে এম মোশারফ হোসেন সিফাত দাবী করেন, আমার পিতা রাজনীতি করেন, পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিও, ঈর্ষান্বিত হয়ে তাকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়েছে। আমি ঘটনার সুষ্টু ও নিরপেক্ষ তদন্ত আশা করি।
এদিকে সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান ও বর্তমান মেম্বার আলী আহমদকে হয়রানীমুলক আসামী করায় এলাকার মানুষের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। ঘটনার সুষ্টু তদন্ত দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে আলী আহমদ মেম্বারকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার দাবী করেন এলাকাবাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.