চকরিয়ায় বোনদের পৈত্রিক সম্পত্তি জবর দখলে নিতে অস্ত্রের মহড়া

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় পিতা-মাতার মৃত্যুর পর আপন বোনদের পৈত্রিক ও মাতৃক সহায় সম্পত্তি জবর দখলে নিতে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী এনে জমিতে অস্ত্রের মহড়া চালিয়েছে ভূমিদস্যু ভাই। এ ঘটনায় এলাকায় ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। পৌরসভা ১নং ওয়ার্ডের লক্ষ্যারচর ছাবেত পাড়ায় ৬জুলাই’২১ইং সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঘটেছে এ ঘটনা। খবর পেয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে সংগীয় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।
এঘটনায় জমি মালিক পক্ষের অংশিদার চকরিয়া পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ডের সবুজবাগ এলাকার বাসিন্দা আবুল বশরের মেয়ে ও মৃত ফরিদুল আলমের স্ত্রী জুবাইদা মোস্তফা বাদী হয়ে এদিন সকালেই থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
এতে অভিযুক্ত করা হয়েছে; মরহুম আবুল বশরের পুত্র একমাত্র সহোদর মো: কুতুব উদ্দিন, তার ছেলে মাহাতাব উদ্দিন, মৃত মকছুদ আহমদের পুত্র মোহাম্মদ হাসান ও মোহাম্মদ হোছাইন, মৃত আলী হোছাইনের পুত্র আক্তার হোসেন, তার পুত্র আইয়ুব আলীসহ অজ্ঞাতনামা আরো ১০/১২জনকে।
অভিযোগে বাদী জুবাইদা মোস্তফা জানিয়েছেন, তার পিতা আবুল বশর ও মাতা ছালেহা খাতুন মৃত্যুর পর পৈত্রিক ও মাতৃক সহায়তা সম্পত্তি ১ভাই, ৩ বোনের পক্ষে দেখাশোনা করতেন একমাত্র সহোদর (ভাই) মো: কুতুব উদ্দিন। লক্ষ্যারচর মৌজার বি,এস খতিয়ান নং ১৮৬৩, ২৮১৬, ৩০৩৩, দাগ নং ৪৮৭, ৫১১, ৫২৭, ২৫২, ৬৪১, ৫৭৬৪, ৪৮৭ দাগের সর্বমোট ২.৫৮২৮ একর জমি রয়েছে। কিন্তু উক্ত সহোদর কুতুব উদ্দিন ওয়ারিশ ৩বোনকে পৈত্রিক ও মাতৃক সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করে বিগত ৬/৭বছর ধরে বসতী ও চাষাবাদী জমি জবর দখল করে রেখেছে। ইতিপূর্বে স্থানীয়ভাবে ইসলামী শরীয়াহ মোতাবেক জমির বন্টননামা ও স্ব-স্ব জমি বুঝিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তও হয়। কিন্তু তা অমান্য করে অভিযুক্ত কুতুব উদ্দিন বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত, কক্সবাজারে জমির উপর ১৪৪ ধারার আদেশ চেয়ে মামলা (নং ১২০৯/২১) দায়ের করেন। মামলার আলোকে পুলিশ উভয়পক্ষকে নোটিশও জারি করেন। কিন্তু বাদী নিজেই তা অমান্য করে জোরপূর্বক স্থাপনা নির্মাণ ও চাষাবাদ করে যাচ্ছে। সর্বশেষ ৬জুলাই’২১ইং সকাল সাড়ে ৮টার দিকে অভিযুক্ত কুতুব উদ্দিন অস্ত্রধারী ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী এনে ফের জমি জবর দখলে নিতে মহড়া দেয়। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। ভূক্তভোগী তিন বোন বিজ্ঞ আদালতসহ আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার কাছে আইনী সহায়তা চেয়েছেন।
জানতে চাইলে সহোদর মো: কুতুব উদ্দিন জানিয়েছেন, লক্ষ্যারচর মৌজার বি,এস খতিয়ান নং ১৮৬৩, ২৮১৬, ৩০৩৩ এর মধ্যে ২টি তার নামে ১টি তার স্ত্রীর নামীয়। এখানে পৈত্রিক ও মাতৃক কোন সম্পত্তি নেই। এছাড়াও উল্লেখিত জমির বিষয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। আদালতের মাধ্যমে তার (বোনেরা) রায় (ডিক্রি) পেলে আমার ভোগ দখলীয় সম্পত্তি হলেও ছেড়ে দেব। তবে, তিনি নতুন করে জমি জবর দখল ও অস্ত্রের মহড়ার বিষয়টি সত্য নয় বলে দাবী করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.