৩৩৩ নম্বরে ফোন পেয়ে খাবার নিয়ে গেলেন উখিয়ার ইউএনও

৩৩৩ নম্বরে ফোন পেয়ে

খাদ্যসামগ্রী নিয়ে আছিয়ার বাড়িতে ইউএনও
খাদ্যসামগ্রী নিয়ে আছিয়ার বাড়িতে ইউএনও। কক্সবাজারের উখিয়ার টাইপালংয়ের বাসিন্দা আছিয়ার পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি ছেলে জাগির হোসেন। লকডাউনের প্রথম দিনে কক্সবাজার প্রশাসনের কঠোর অবস্থানে জাগির হোসেনের রোজগার বন্ধ হয়ে যায়।

রোজগার না থাকায় পরিবারের ছয় সদস্যই সারাদিন না খেয়ে ছিলেন। পরিবারের করুণ এ পরিস্থিতির কথা জানাতে জাগির হোসেন ফোনে যোগাযোগ করেন জাতীয় জরুরি সেবা ৩৩৩ নম্বরে।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) বিকেলে ফোন পেয়েই দুর্গম পথ পাড়ি দিয়ে অসহায় পরিবারটির জন্য খাদ্যসামগ্রী নিয়ে গেলেন উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নিজাম উদ্দিন আহমেদ। জাগির হোসেনের মা বৃদ্ধা আছিয়া খাতুনের হাতে তুলে দেন চাল, ডাল, আলুসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী।

ইউএনও নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, উপজেলায় হতদরিদ্র ও কর্মহীনদের কাছে আমরা প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছি। কঠোর লকডাউনের প্রথম দিনে তিনজনকে এই সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। আমরা খবর পেলে যাচাই সাপেক্ষে এই সহায়তা পৌঁছে দেব।

খাদ্যসহায়তা পেয়ে উচ্ছ্বসিত বৃদ্ধা আছিয়া বলেন, ‘আল্লাহ রহম করুক ইউএনও সাবোরে, বেশি খুশি হইয়ি। হারাদিন ন হাই আইসসিলাম।’

এদিকে, বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) সকাল ৬টা থেকে শুরু হওয়া কঠোর লকডাউন কার্যকর করতে সকাল থেকে বিভিন্ন জেলায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সেনাবাহিনী, বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যদের টহল দিতে দেখা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.