চকরিয়ার ভেওলায় বসতভীটার জমি বিরোধে হামলায় বয়োবৃদ্ধসহ ৪জনকে কুপিয়ে জখম

চকরিয়া প্রতিনিধি:
চকরিয়ায় বসতভীটার জমি বিরোধকে কেন্দ্র করে ও থানায় অভিযোগ দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলায় বয়োবৃদ্ধসহ একই পরিবারেরর ৪জনকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের ০২নং ওয়ার্ডের পশ্চিম সিকদার পাড়া গ্রামে ২৩এপ্রিল সন্ধ্যা ৬ ঘটিকার দিকে ঘটেছে এ ঘটনা।
এনিয়ে ওই এলাকার মৃত আতর আলীর পুত্র ওমর মিয়া (৮৫) বাদী হয়ে এদিন রাতেই থানায় এজাহার দায়ের করেছেন।
এতে বিবাদী করা হয়েছে, মৃত আলী চানের পুত্র নুরুচ্ছফা, তার পুত্র সাহাব উদ্দিন, মৃত ওমর হামজার পুত্র নুরুচ্ছফা, আদু খালেক, আব্দু শুকুর,নুরুল আলমের পুত্র ফারুক, নুরুচ্ছফার স্ত্রী নুরতাজ বেগম, মৃত ওমর হামজার মেয়ে সমশুন নাহার (৪০) নুরুচ্ছফার মেয়ে রায়হান জন্নাত ও
লাকি (২০)সহ অজ্ঞাত আরাে কয়েকজনকে।

বাদী তার লিখিত এজাহারে জানিয়েছেন,তাদের দীর্ঘদিনের ভােগ-দখলীয় বসতভিটা ও ভিটা লাগােয়া নাল জমি জবর-দখলের চেষ্টা করে প্রতিপক্ষ বিবাদীরা। এনিয়ে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ নিয়ে বৈঠক হয়। শালিসী রায়-ডিক্রিও তাদের পক্ষে প্রচার রয়েছে। কিন্তু আসামীগণ উক্ত রায়-ডিক্রি অমান্য করে গত ২১এপ্রিল’২০১১ইং বাড়ি-
ভিটায় গিয়ে বিভিন্ন গাছপালা কেটে ক্ষতিসাধন করে। এনিয়ে জমি মালিকের ছেলে মােঃ বেলাল উদ্দিন (৪৫) বাদী
হয়ে গত ২২এপ্রিল’২০২১ইং থানায় অভিযােগ দায়ের করেন। তাতে ক্ষিপ্ত ও ক্ষুদ্ধ হয়ে পরিকল্পিতভাবে প্রাণে হত্যার চেষ্টায় ধারালো অস্ত্র নিয়ে ২৩এপ্রিল’২০২১ইং সন্ধ্যা ৬ ঘটিকার সময় বাদীর বাড়ি-ভিটায় অনধিকার প্রবেশ করে আম গাছ, সুপারি গাছ কেটে লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিসাধন করে। প্রতিবাদ করতে গিয়ে হামলায় আহত হয়েছেন মৃত আতর আলীর পুত্র ওমর মিয়া (৮৫), তার ছেলে মােঃ বেলাল উদ্দিন (৪৫), মােঃ হােছনের স্ত্রী নুর নাহার বেগম (৪০), ওমর মিয়ার পুত্র মৌলভী ইউনুছ।
লুট করে নিয়ে গেছে নগদ ৮হাজার টাকা, সাড়ে ১৭ হাজার টাকা মূল্যের ১টি স্কিন টার্চ মােবাইল সেট, ৩৫ হাজার টাকা মূল্যের ৮ আনা ওজনের ১টি স্বর্ণের আংটি। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানেও অভিযুক্তরা নানাভাবে হুমকি ধমকি অব্যাহত রেখেছে। ভুক্তভোগি পরিবার প্রশাসনের কাছে আইনি সহায়তা চেয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.