চকরিয়া পৌর এলাকায় অসহায় পরিবারের শতবর্ষী বসতভীটা জবর দখলে হামলা ও ভাংচুর

বিশেষ প্রতিবেদক:
চকরিয়ায় এক অসহায় পরিবারের দীর্ঘকালের ভোগ দখলীয় বসতভীটা জবর দখল চেষ্টায় হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটছে। পৌরসভা ৩নং ওয়ার্ডের পূর্ববাটাখালী ফুলতলা এলাকায় ৯মার্চ বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে ঘটেছে এ ঘটনা।
অভিযোগে জানাযায়, পৌরসভার ফুলতলা এলাকায় দীর্ঘ ৬০/৬৫বছর ধরে প্রায় ১০শতক জমিতে বসতবাড়ি নির্মাণ করে পরিবার পরিজন নিয়ে শান্তিপূর্ণ ভোগ দখলে আছেন মরহুম মোহাম্মদ হোসেনের পুত্র আবদুল হক (৮০)। তিনি জানান, বিএস খতিয়ান নং ১৮৮, বিএস দাগ নং ৫৩৮ এর ১০শতক জমি তাকে দখল দিয়ে শাসন,রক্ষণা-বেক্ষণ ও পরিবার পরিজন নিয়ে থাকার জন্য মৌখিক দান করে দেন জমির মূল মালিক আবদুল হাকিমের পুত্র মো: সেকান্দর, মাগন আলীর পুত্র আবদুল খালেক, মৌলানা আমিন উল্লাহর স্ত্রী ওমরা খাতুন, মোস্তাফিজুর রহমানের স্ত্রী সোয়া বিবি, মৌলানা ওবাইদুল হাকিমের স্ত্রী মোমেনা খাতুন গংয়ের কাছ থেকে। তার দীর্ঘকালের সুন্দর সংসারে বর্তমানে ৪ছেলে ১ মেয়ে ও ৮নাতি-নাতনি রয়েছে। সন্তানরা ফার্ণিচার মেস্ত্রী ও দর্জির কাজ করেন।  কিন্তু সম্প্রতি সময় থেকে জনৈক এক ব্যক্তি কথিত কাগজপত্র সৃজন করে জমির মালিক দাবী করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় জনৈক আরাফাত ও গিয়াস উদ্দীনের নেতৃত্বে আরো কয়েকজন নিয়ে ঘটনারদিন ৯মার্চ বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বসতভীটায় ঢুকে একটি টিউবওয়েল ও রান্না ঘরের সামগ্রী ভাংচুর করে। টানা-হেছড়া করে ধাক্কা দিয়ে আহত করে বয়োবৃদ্ধ আবদুল হকের পুত্র তছলিমা বেগম (২২)কে।
এদিকে জানতে চাইলে আরাফাত জানিয়েছন, উক্ত ১০শতক জমি তার রেজিষ্ট্রি মূলে ক্রয় করে বিএস খতিয়ান সৃজন করেছেন। আবদুল হককে অন্যত্র পূণবার্সন করার জন্য পিতার জীবদ্দশায় প্রস্তাব দিয়েছিলেন। তাতে রাজী হননি। এছাড়াও বসতবাড়িতে ভাংচুর ও হামলার মত কোন ঘটনাও ঘটেনি। পাশ্ববর্তী খালি জায়গায় নতুন করে একটি টিউবওয়েল স্থাপনের চেষ্টা করলে তা না করার জন্য বাধা নিষেধ করেছেন মাত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.