প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদ নিয়ে মুছারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দাতা প্রতিষ্ঠাতা আমিনুল মোস্তাফার প্রতিবাদ

কক্সবাজারের শীর্ষ অনলাইন নিউজ পোর্টাল “কক্সবাজার নিউজ ডট কম” (সিবিএন)সহ বিভিন্ন অনলাইন মিডিয়া ও পত্রিকায় “মুছারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে হুমকিতে দেড়শ শিক্ষার্থীর লেখাপড়া” শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন মুছারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দাতা প্রতিষ্ঠাতা আমিনুল মোস্তাফা।

প্রকাশিত সংবাদকে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিহিত করে বলা হয় আমি মুছারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দাতা প্রতিষ্ঠাতা আমিনুল মোস্তাফা, গেলো ১৪ই সেপ্টেম্বর কক্সবাজার নিউজে “মুছারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে হুমকিতে দেড়শ শিক্ষার্থীর লেখাপড়া” শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে, যা সম্পূর্ণ মনগড়া, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। সংবাদে বলা হয়েছে আমি আমার প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের হুমকির মুখে রেখেছি, যা সম্পূর্ণ মিথ্যা, তবে হুমকির মুখে আছে তা সত্য সেটা শুধু চকরিয়া উপজেলা শিক্ষা অফিসারের দুর্নীতির দায়ে স্কুল বন্ধ থাকার কারণে। যা নিয়ে এর আগেও বেশ কয়েকটি পত্র-পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। তাই আমি মনে করি এটি আমাকে হেয় করার জন্য করা হয়েছে। আমি বিগত কয়েকমাস ধরে এলাকা ছাড়া। আমি কিভাবে আমার করা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যত হুমকির মুখে রেখেছি।

তাই স্থানীয় এলাকাবাসী ও আইন-শৃংখলা বাহিনীর সকল সদস্যদের প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে উক্ত সংবাদে আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগটি পড়ে আপনার কেউ বিছলিত হবেন না।
প্রকৃতপক্ষে আমার স্ত্রী ——-স্কুলে প্রধান শিক্ষিকা থাকাবস্থায় স্কুল সরকারী করার পর তাদেরকে সহকারী শিক্ষক হিসাবে নিয়োগ দিলে আমার স্ত্রীসহ আরো অন্যান্য কয়েকজন, যারা এফেক্টেট হয়েছে সবাই মহামান্য হাইকোর্টে রীট পিটিশন নং ২৪৬০-/১৯ ফাইল করলে মহামান্য হাইকোর্ট উক্ত আদেশের বিরুদ্ধে রুল জারি করেন এবং স্থিতিবস্থার আদেশ প্রদান করেন। যাহা বলবৎ থাকাকালীন সময়ে হাইকোর্টের আদেশকে অমান্য করে কর্তৃপক্ষ তাং-২৫-০৩-২০১৯ তে আমার স্ত্রীকে অবৈধ ভাবে বদলীর আদেশ দেন।
যেহেতু হাইকোর্টে রুল ও স্থিতিবস্থা আছে তাই আমার স্ত্রী যোগদান করেন নাই।
এর মধ্যে আমার স্ত্রী ও আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগ আনায়ন করে আমার স্ত্রীকে প্রথমে অবৈধভাবে বরখাস্ত ও পরে অবৈধভাবে চাকুরী থেকে ডিসমিস করে দেয়। যাহা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্য মূলক ভাবে তারা করেছে। এর পরও তারা ক্রান্ত হয় নাই।এখন তারা আমাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যাচার করতেছে এবং অনলাইন ও পত্রিকার আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করেছে।
যাহা আমরা তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমি এই প্রতিষ্ঠানের দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি।। তদন্ত করে দেখলে আপনারা সব কিছু জানতে পারবেন। পাশাপাশি জাতির বিবেক সাংবাদিক ভাইদের প্রতি অনুরোধ থাকবে, কোন নিউজ করার আগে সঠিক তথ্য যাচাই বাছাই করে সংবাদ পরিবেশন করুন।

প্রতিবাদকারী
আমিনুল মোস্তাফা
দাতা প্রতিষ্ঠাতা, মুছারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঢেমুুশিয়া, চকরিয়া, কক্সবাজার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.