মানবিক ইউএনও’র অন্তহীন মানবিক কাজ :এবার গভীর রাতে অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধাকে চট্টগ্রামে প্রেরণের ব্যবস্থা

এ.কে.এম রিদওয়ানুল করিমঃ কুতুবদিয়ায় এবার গভীর রাতে অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধাকে চট্টগ্রামে প্রেরণের ব্যবস্থা করে মানবিক দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন কুতুবদিয়ার  ইউএনও জিয়াউল হক মীর ও সহকারী কমিশনার মোঃ হেলাল চৌধুরী।

জানা গেছে, জাতির সূর্য সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা পুলিন বিহারী শীলের অসুস্থতার খবর পেয়ে রাত ১১ টায় দেখতে কুতুবদিয়া সরকারি হাসপাতালে ছুটে যান ইউএনও জিয়াউল হক মীর ও সহকারী কমিশনার মোঃ হেলাল চৌধুরী। এসময় কর্তব্যরত ডাক্তার অসুস্থ বীর মুক্তিযোদ্ধাকে চট্টগ্রামে রেফার্ড করেছেন জেনে হাসপাতালের উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার সাথে ফোনে কথা বলে  চট্টগ্রামে রেফার্ড করার বিষয়টি নিশ্চিত করেন । সেসাথে অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিত করে চট্টগ্রামে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সরকারি গাড়িযোগে উনাকে বড়ঘোপ জেটিঘাটে নিয়ে গিয়ে বোটে তুলে দেন রাত ১১:৪০ টায়। ওপারে কুতুবদিয়া হাসপাতালের সরকারি অ্যাম্বুলেন্সের মাধ্যমে চট্টগ্রামে পৌছানোর ব্যবস্থা করেন। পরে চট্টগ্রামে পৌছানোর বিষয়টি  মুক্তিযোদ্ধার ছেলের সাথে কথা বলে নিশ্চিত করেন ।

এদিকে একজন অসুস্থ বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মানের সহিত ইউএনওর ব্যবহৃত  সরকারী গাড়ী যোগে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দেয়াকে মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন বলে অনেকে  ইতিবাচক মন্তব্য করেছেন। অনেকে মন্তব্য করে বলেছেন মানবিক ইউএনও’র অন্তহীন মানবিক কাজ এটি। এমন একজন মানবিক ইউএনওর মহৎ কর্মে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপক সাড়া পড়ে যায়।

রিয়াদ মোহাম্মদ তানবির নামের একজন মন্তব্য করে লিখেছেন তা হুবহু তুলে ধরা হলঃ

অনন্য দৃষ্টান্তস্থাপন করলেন কুতুবদিয়া উপজেলা প্রশাসক

Ziaul MirU.N.O
আসলে দায়িত্ববোধ কাকে বলে তা কখনো এতো ভালোভাবে বুঝতাম না,,,, উনার এমন পারদর্শিক উদারনৈতিক বলবৎকরণ কার্যতৎপরতাগুলোর মধ্যরাতের এই মিশনারি (হঠাৎ আসীন – দেবদূত/ধর্মপ্রচারকের মতন) উদ্যোগগুলো না দেখলে।
এরকম অফিসারগুলোর এমন উদারনৈতিক দায়িত্ব – জ্ঞান তৎপরতা দেখে নিজের ভেতরকার দেশপ্রেমটুকু আরো উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.