চকরিয়ার ঢেমুশিয়ায় আলোচিত বয়োবৃদ্ধকে মারধরের ঘটনায় স্বেচ্ছায় আইনী সহায়তা দেবেন এড. রবিউল

চকরিয়া প্রতিনিধি
চকরিয়া উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের ছয়কুড়িটিক্কাপাড়ায় নরপশু সদ্য বহিস্কৃত যুবলীগ নেতা আনচার প্রকাশ আনছুজ্জ্যা, বদিআলম ও আরজ খাতুন বাহিনীর হাতে গত ২৪মে’২০ইং বিবস্ত্র করে নির্মমতার স্বীকার হন প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল আলম। এরপর ঘটনার ভিডিওটি গত ২জুন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও অনলাইনে ভাইরাল হওয়ার পর ওইদিন রাতেই চকরিয়া থানায় আনছুরসহ ৮জনকে অাসামী করে আরো অজ্ঞাতনামা আসামী দেখিয়ে মামলা (নং ৫/২০) রুজু হয়। মামলার বাদী বৃদ্ধ নুরুল আলমের ছেলে আশরাফ হোসেন। ঘটনার পর গত ৩জুন কক্সবাজার জেলা যুবলীগের সভাপতি এবং সাধারন সম্পাদকের নির্দেশে বয়োবৃদ্ধ মুরব্বী দলের প্রবীণ নেতা নুরুল আলমকে তার বাড়িতে দেখতে যান চকরিয়ার মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি, দরবেশকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি, কক্সবাজার ও দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ তরুণ আইনজীবি ও সমাজসেববক জনাব, এডভোকেট রবিউল এহেসান লিটন। এসময় তাহার কান্নাজড়িত কন্ঠে নির্মমতার সব কথা শুনেন এবং নরপশুরাসহ তাদের আশ্রয় প্রশ্রয়দানকারীদের বিচারের আওতায় বিনাপারিশ্রমিকে স্বেচ্ছায় আইনী সহায়তা দেয়ার ঘোষনা।
জানতে চাইলে এডভোকেট রবিউল এহেছান লিটন বলেন, প্রত্যেকেরই জন্মদাতা মা-বাবা রয়েছে। কিন্তু একজন পিতৃসমতুল্য মুরব্বীর প্রতি যেই বর্বারতা দেখিয়েছে তা শুধু মানবিকই নয়, আইয়্যামে জাহেলিয়াত ও পশুত্বকেও হার মানিয়েছেন। তিনি কক্সবাজার জেলা যুবলীগের পক্ষ উক্ত পরিবারের প্রতি ক্ষমা প্রার্থী। তিনি ওই পরিবারকে আইনী সবধরণের সহযোগিতা দেয়ার ঘোষনা দেন এবং নির্মমতার জন্য তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.