চকরিয়া পৌর এলাকায় ব্যতিক্রমি মানবিক খাদ্য সহায়তা হানিফ ইসলামের, অভুক্ত মানুষের মুখে হাসি

চকরিয়া অফিস:
বিশ্বব্যাপী মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। মধ্যবিত্ত, নিন্মমধ্যবিত্ত, নিন্ম আয়ের মানুষ ও দরিদ্র জনগোষ্ঠী কর্মহীন ও গৃহবন্ধি হয়ে পড়ে দু’মুঠো আহারের জন্য মৃত্যুর ঝুঁকির মাঝেও ছুটছেন সকল বাধা অতিক্রম করে। এ অবস্থার পরিত্রানে কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভা ৩নং ওয়ার্ডের কর্মহীন অসহায় মানুষের মাঝে কয়েক দফায় খাদ্য সহায়তা নিয়ে পাশে দাঁড়ালেন চকরিয়া পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা কক্সবাজার জেলা যুবলীগের প্রভাবশালী সদস্য ও কক্সবাজার সিকুইন মাকের্ট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট সমাজসেবক সাবেক ছাত্রনেতা মোঃ হানিফ ইসলাম।
তিনি ২৯ এপ্রিল থেকে ১৭ মে পর্যন্ত ৮ দফায় অন্তত ২৬০০ পরিবারের মাঝে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সহায়তা সামগ্রী বিতরণ করেন।
ইতিপূর্বে সমাজসেবক ও রাজনীতিবিদ হানিফ ইসলামের ব্যক্তিগত খাদ্য সামগ্রী ও ইফতার সামগ্রী প্যাকেজ কর্মসূচি কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন চকরিয়া-পেকুয়া (কক্সবাজার-১) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জননেতা আলহাজ জাফর আলম এমএ। উদ্বোধনকালে তিনি, করোনা বৈশ্বিক মহামারিতে সমগ্র মানব জীবন বিপর্যস্ত মন্তব্য করেন এবং এই অবস্থায় হানিফ ইসলামের গরিব-দুঃখিদের পাশে দাঁড়ানোর প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানান৷ সমাজের সকল বিত্তবানদের উচিত গরিব-দুঃখীদের পাশে দাঁড়ানো৷
ইফতার সামগ্রী বিতরণ উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক কাপ্তাই উপজেলা সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ সাহাবউদ্দিন মাহমুদ, লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আলাউদ্দিন আজাদ।
বিশিষ্ট সমাজসেবক হানিফ ইসলাম বলেন, করোনা মহামারীর কারণে দিনমজুর, কর্মহীন পরিবার খুব সমস্যার মধ্যে দিনযাপন করছে তাই করোনার মহামারীর সময়ে পৌরসভার প্রাণপ্রিয় ৩নং ওয়ার্ডের নাগরিকদের মাঝে ইতিমধ্যে ৮দফায় অন্তত ২৬০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা ও ইফতার সামগ্রী বিতরণ শেষ করেন।
খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে তিনি আরো বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের প্রভাবে সাধারণ মানুষ বিশেষ করে শ্রমজীবি পরিবার গুলো বেশি দুর্ভোগে আছে। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে জাতীয় দুর্যোগ মুহুর্তে মানবিক সহায়তা হিসেবে ৩নং ওয়ার্ডের কর্মহীন, মধ্যবিত্ত, নিম্নমধ্যবিত্ত সকল শ্রেনির মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছি এবং আগামীতেও তাদের পাশে থাকার চেষ্ঠা অব্যাহত থাকবে। দুর্যোগ মুহুর্তে যার যার অবস্থান থেকে জাতীয় এ মহামারীর প্রাদুর্ভাবে নিম্নবিত্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোটা এখন বিত্তবানসহ সকলের জন্য নৈতিক দায়িত্ব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.