চকরিয়ায় শ্বাশুড় বাড়ির জিম্মিদশা থেকে পুলিশি সহায়তায় গৃহবধুকে উদ্ধার

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় দেবর,ননদসহ শ্বাশুড় বাড়ির লোকজনের অত্যাচার ও অমানবিক নির্যাতনের জিম্মিদশা থেকে থানা পুলিশের সহায়তায় এক গৃহবধুকে উদ্ধার করেছে তার পরিবার। উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড রংমহল এলাকায় ঘটেছে এ ঘটনা।
অভিযোগে ও প্রাপ্ত তথ্যে জানাগেছে, চকরিয়ার কৈয়ারবিল ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মুহুরীপাড়া গ্রামের মোঃ শাহাদত হোসেনের মেয়ে নুসরাত জাহান মিম এর সাথে বিগত প্রায় ৪বছর পূর্বে রেজিষ্ট্রাট কাবিননামা ও ইসলামি শরীয়াহমতে বিয়ে হয় ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড রংমহল গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মদের পুত্র মোবারক হোসেন পাপ্পু’র। সংসারে মোঃ আইয়ান নামে ২বছর ৫মাস বয়সী এক পুত্র রয়েছে এবং বর্তমানে ৬মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা। স্বামী বিদেশে থাকার সুবাদে সংসার জীবনে দেবর, ননদ ও শ্বাশুর বাড়ির লোকজনের প্রতিনিয়তন অমানবিক নির্যাতন, মারধর চালিয়ে আসছিল গৃহবধু মিমকে। এমনকি বিদেশে (দুবাই) অবস্থান করা স্বামীকেও বিভিন্নভাবে ভুল বুঝিয়ে মিথ্যা প্ররোচনা দিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়ান সৃষ্টির চেষ্টাও করে শ্বাশুড় বাড়ির লোকজন। ইতিপূর্বে তাকে (গৃহবধু) ফুসলিয়ে দেবর মোবাশ্বের হোসেন পাভেলের নেতৃত্বে বিভিন্ন আইটেমের বিয়ের স্বর্ণসহ ৬ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার বন্ধক দিয়ে টাকা আত্বসাত করেছে। সর্বশেষ গত ২ মে বিকাল ৩টায় বিনাঅজুহাতে দেবর মোবাশ্বের হোসেন পাভেল, ভাশুর সিরাজুল মনিরা, মৃত আমির। হামজার পুত্র সিরাজদৌলা,
ননদ মমতা বেগম ও রিনা আক্তার, তার ছেলে যাওয়াদ, মোবাশ্বের হোসেন পাভেলের স্ত্রী হাফসা বেগমগং গৃহবধু মিমকে বেধম মারধর করে। বিষয়টি স্থানীয়রা মোবাইল ফোনে গৃহবধু মিমের পিতা শাহাদত হোসেনকে জানালে তিনি ওইদিন সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসার চেষ্টা করেন। কিন্তু উল্টো তাকেও (গৃহবধুর পিতা) মারধর করে প্রাণনাশের চেষ্টা চালালে তিনি সেখান থেকে মেয়েকে ছাড়া চলে আসেন। পরদিন ৩ মে’২০ ইং থানা লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ হাবিবুর রহমান তা আমলে নিয়ে তাৎক্ষনিকভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুল্লাহ আল মাসুদকে নির্দেশ দেন। এরপ্রেক্ষিতে তিনি পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে নির্যাতিত গৃহবধুকে উদ্ধার করে পিতার জিম্মায় দিয়ে দেন। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দিয়ে বাড়ি ফিরেন। ভূক্তভোগি গৃহবধুর পিতা শাহাদত হোসেন মেয়ের উপর অমানবিক নির্যাতনের বিষয়ে আইনী প্রতিকার চেয়েছেন, তিনি মামলার প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.