একজন প্রচার বিমূখ মিজানুর রহমান, ৬০০ পরিবারে খাদ্য সহায়তা প্রদান, মহাদূর্যোগে বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান

আবদুল মজিদ:
বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের নামে চলছে মহামারি। এ মহা দূর্যোগ থেকে রক্ষা পায়নি প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ। বর্তমানে বাংলাদেশে ৫ হাজার ছাড়িয়েছে এ রোগে রোগির সংখ্যা। বিশ্বে নিহত ২লক্ষাধিক। ফলে বাংলাদেশের মানুষ কর্মহীন হয়ে গৃহবন্ধী রয়েছে। এ অবস্থায় বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষনা দিয়েছেন কোন মানুষ অভুক্ত থাকবেনা। এ জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তর সমূহকে নির্দেশ দিয়েছেন। এরপরও সাধারণ শ্রমজীবি মানুষ অনাহারে অর্ধাহারে দিনাতিপাত করছে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে সমাজের বিত্তবানদেরকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে গৃহবন্ধী মানুষের খাদ্য সংকট মোকাবেলায় এগিয়ে আসতে হবে।
কিন্তু একজন প্রচার বিমুখ জনসেবকের সন্ধানও এ সমাজে পাওয়া যায়। কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য বিশিষ্ট ঠিকাদার ও সমাজসেবক মোঃ মিজানুর রহমান তার ব্যক্তিগত অর্থায়নে করোনার মহামারির শুরু থেকে চকরিয়া উপজেলার শাহারবিল ইউনিয়নের কর্মহীন পরিবারে খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি করোনার শুরুতে স্থানীয় সাহারবিল ইউপির সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ শাকের উল্লাহ, আওয়ামীলীগ নেতা এসএম সায়েম ও জনৈক ইউপি সদস্যের মাধ্যমে পাড়ায় পাড়ায় গিয়ে এবং কয়েকটি নির্ধারিত দোকান থেকে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করে আসছেন। বিশেষ করে ১৪ এপ্রিল ৪,৫ ও ৬নং ওয়ার্ডে ৪০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা হিসেবে ১০ কেজি করে চাউল বিতরণ করেন। এছাড়া ২৫ এপ্রিল দুপুরে আরো ২০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করেন।
জানতে চাইলে কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য বিশিষ্ট ঠিকাদার মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, মানুষকে কিছু দিয়ে প্রচার করে নিজেকে ছোট করতে চাইনা। এটি তাদের হক তাদেরকে দিচ্ছি। তবে বর্তমান করোনার মহামারির এই দূর্যোগে মূলতঃ এই নিউজটি পেয়ে এলাকার অন্যান্য বিত্তবানরাও দরিদ্র এবং কর্মহীন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সহায়তায় এগিয়ে আসতে উৎসাহিত হবেন। তিনি বলেন, মহান আল্লাহর নৈকট্য অর্জনেই এসব দান করে যাচ্ছেন। তিনি বর্তমান মহাদূর্যোগসহ ভবিষ্যতেও সহায়তা অব্যাহত রাখার ঘোষনা দেন।
মহান আল্লাহ প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশের মানুষকে হেফাজত করুন, আমিন। উল্লেখ্যযে তিনি বিগত সময়ে কয়েকদফা বন্যা এবং ঈদ মৌসুমে বিনিময় বিহীন নিরবে অসংখ্য পরিবারকে সহায়তা করেছেন।
তিনি সাহারবিল ইউনিয়নের মাইজঘোনা নিবাসী বৃহত্তর চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা মরহুম আলহাজ্ব মাস্টার আবুল হাসেমের সুযোগ্য সন্তান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.