চকরিয়া পৌর এলাকায় জমি জবর দখলে নিতে জমি মালিককে কুপিয়ে জখম

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়া পৌর এলাকায় জমি জবর দখলে নিয়ে পাকা দালান নির্মানের চেষ্টা চালানো হয়েছে। জবর দখলে বাধা দেয়ায় জমি মালিক পক্ষকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টায় হাড়ভাঙ্গা জখম করা হয়েছে। চকরিয়া পৌরসভা ১নং ওয়ার্ডের লক্ষ্যারচর তরচপাড়া গ্রামে গত ৭এপ্রিল বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে ঘটেছে এ ঘটনা। এঘটনায় ভূক্তভোগি পরিবারের ১নং ওয়ার্ডের বাজারপাড়া গ্রামের মরহুম নজির আহমদের পুত্র বোরহান উদ্দিন বাবু বাদী হয়ে ৮ এপ্রিল’২০ থানায় লিখিত এজাহার দায়ের করেন। এতে অভিযুক্ত করা হয়েছে; লক্ষ্যারচর তরচপাড়া গ্রামের মৃত ছৈয়দ আহমদের পুত্র নুর মোহাম্মদ নুরু, তার ছেলে মফিজুর রহমান ও জিয়াবুল হক, ফিরোজ আহমদ বৈদ্যের পুত্র আবদুল হামিদ, নুর মোহাম্মদ নুরুর স্ত্রী নুরুচ্ছফা বেগমসহ অজ্ঞাত আরো ২/৩জনকে।
অভিযোগে জানাগেছে, চকরিয়া পৌরসভা ১নং ওয়ার্ডের লক্ষ্যারচর তরচপাড়া এলাকায় মরহুম নজির আহমদের পুত্র বোরহান উদ্দিন বাবু ও সাহাব উদ্দিন মেম্বার গং এর নামে লক্ষ্যারচর মৌজার বিএস খতিয়ান নং ৬৭২, বিএস দাগ নং ৫৭১, ৫৭২, ৫৭৩ ও ৫৭৪ এর ০১.০৫ একর জমি রয়েছে। উক্ত জমি চাষাবাদসহ শান্তিপূর্ণ ভোগ দখলেও রয়েছেন। জমির কিছু অংশ নুর মোহাম্মদ নুরুর বাড়ির পাশ্ববর্তী হওয়ায় ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী বাহিনী এনে ইট, বালি কংকরের স্তুপ করে জোর পূর্বক পাকা দালান নির্মানের চেষ্টা করলে জমি মালিক পক্ষের বোরহান উদ্দিন বাবু ও সাহাব উদ্দিন মেম্বার গিয়ে বাধা দেন। ওই সময় পূর্বপরিকল্পিতভাবে অভিযুক্তরা তাদেরকে দেশীয় তৈরী অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে অতর্কিত হামলা চালায়। হামলাকালে জমি মালিক পক্ষের সাহাব উদ্দিন সাবেক এমইউপি (৪৮) কে হাতে, পীঠেসহ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে গুরুতর আহত সাহাব উদ্দিন ও বোরহান উদ্দিন বাবু (৫৫) কে উদ্ধার করে প্রথমকে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাহাব উদ্দিনকে আশংখাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। অভিযোগ উঠেছে, ইতিপূর্বেও নুর মোহাম্মদ নুরু গং জমি জবর দখলের চেষ্টা করলে তাদের বিরুদ্ধে গত ২৪ফেব্রুয়ারী চকরিয়া পৌরসভায় লিখিত অভিযোগ করেন। পৌরসভা থেকে নোটিশ দিয়ে একাধিকবার ডাকলে প্রথমবার আসলেও বৈধ কোন কাগজপত্র দেখাতে না পারায় পরবর্তীতে বিচার না পাওয়ার ভয়ে পৌরসভার শালিসি বৈঠকে আর আসেনি। এরপরও নির্মাণকাজ চালাতে চাইলে গত ৯মার্চ’২০ ইং চকরিয়া থানা অভিযোগ (নং এসডিআর ৩৩৫/২০) দায়ের করেন বোরহান উদ্দিন বাবু গং। অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানার এসআই রুহুল আমিন তাদেরকে বৈঠকে ডাকলে তারা বৈঠকে আসেনি। সর্বশেষ গত ৭এপ্রিল ভাড়াটিয়া বাহিনী এনে জমি জবর দখল করে পাকা দালান নির্মাণের চেষ্টা চালায় এবং তাতে জমি মালিক পক্ষ বাধা দেয়ায় পরিকল্পিত হামলার এ ঘটনাটি ঘটেছে। এঘটনায় এলাকায় ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। ভূক্তভোগি পরিবারের প্রশাসনের হস্তক্ষেপ পূর্বক আইনী সহায়তা কামনা করেছেন।
চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ হাবিবুর রহমান জানান, হামলার ঘটনার লিখিত এজাহার পেয়েছেন এবং প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.