অপরাধীদের মূর্তিমান অাতঙ্ক কতুবদিয়ার_ওসি মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদৌস

অপরাধীদের মূর্তিমান আতংক কুতুবদিয়ার_ওসি মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদৌস

———————————————

মাদক, জুয়া, সন্ত্রাস, চুরি, ছিনতাই, রাহাজানি, জুলুমবাজ ও জঙ্গিবাদ দমনে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে কুতুবদিয়া থানা পুলিশ। কুতুবদিয়া থানার চৌকস অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদৌসের নেতৃত্বে সাড়াঁশি অভিযানে পুলিশের ফাঁদে আটকা পড়ছে ছোট বড় সকল অপরাধী। তাই অতি অল্প সময়ে দ্বীপের সাধারণ মানুষের আস্থাভাজন ও নির্ভরতার প্রতীক হয়ে উঠেছেন কুতুবদিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দিদারুল ফেরদৌস।

জাতিসংঘের সফল শান্তিরক্ষা মিশন শেষে গত ১৩ আগস্ট কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া থানায় যোগদান করেন ওসি মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদৌস। যোগদানের পরেই তিনি মাদক, জুয়া, সন্ত্রাস, চুরি, ছিনতাই, রাহাজানি, জুলুমবাজ ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ গ্রহন করেন। এর পর থেকেই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে চালান সাড়াঁশি অভিযান।

তাঁর সাহসী নেতৃত্বে গত ১৯ আগস্ট মাদকসহ ৩ টি মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী উপজেলার আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের ফতেহ আলী সিকদার পাড়ার নুর হোছাইন (৩০) কে গ্রেপ্তার করা হয়। ২০ আগস্ট সন্ধ্যায় বড়ঘোপের কৈবর্ত্য পাড়ায় অভিযান চালিয়ে পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী গীতা রাণী দাশ (৪২) কে ২০০ গ্রাম গাঁজাসহ আটক করা হয়। পরে উপজেলা নির্বাহি অফিসার ও নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট সুজন চৌধুরী ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তাকে অর্থ দন্ডে দন্ডিত করেন। ২১ আগস্ট দক্ষিণ ধূরুংয়ের বাতিঘর পাড়ায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে ২ টি দেশীয় তৈরী এলজি, ৩ টি রাম দা ও সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত ৬ টি মোবাইল ফোনসহ দক্ষিণ ধূরুং ২ নং ওয়ার্ডের আলী আকবর (২২) ও একই ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের পারভেজ (১৪) নামে দুই জলদস্যুকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশ। এ সময় মুক্তিপনের দাবীতে তাদের নিকট জিম্মি চার জেলেকে উদ্ধার করা হয়। ২৩ আগস্ট দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে উত্তর ধূরুংয়ের আকবরবলী পাড়া থেকে আটক করা হয় কুখ্যাত জলদস্যু আবদু রহিম প্রকাশ লইক্যা (৪৭) ও তার সহযোগী ওমর ফারুক (৩০) কে। ২৪ আগস্ট ধূরুং বাজার থেকে আটক করা হয় উপকূলের ত্রাস বিভিন্ন অপহরণসহ বিভিন্ন অপকর্মের মূল হোতা ইয়াবা ডন খ্যাত লেমশীখালীর ইসহাক মেম্বার (৩৫) কে এসময় তার স্বীকারোক্তিমতে ২ টি দেশীয় তৈরী এলজি ও ২ রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। তার বলিষ্ট নেতৃত্বের কারনে কুতুবদিয়া এখন প্রায় সন্ত্রাসমুক্ত। তাই অপরাধীদের মূর্তিমান আতংক ওসি দিদারুল ফেরদৌস। আর সাধারণ মানুষের কাছে তিনি নির্ভরতা ও আস্থার প্রতীক।

কুখ্যাত সন্ত্রাসী ইসহাক মেম্বারকে আটক করায় ওসি মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদৌসের প্রতি ভালবাসার প্রতিদান হিসেবে গত শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে উপজেলার লেমশীখালী ও উত্তর ধূরুংয়ের মসজিদে মসজিদে বিশেষ মোনাজাতের আয়োজন করে সাধারণ মানুষ। তিনি কুতুবদিয়ায় যোগদানের পর অনেক অপরাধী এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে। কেউ আবার দু’নম্বরি ব্যবসা বাণিজ্য গুটিয়ে নিয়ে ভালো পথে ফেরার চেষ্টা করছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে অপরাধীদের বিরুদ্ধে ওসি দিদারুল ফেরদৌসের চ্যলেঞ্জকে স্বাগত জানিয়েছে এলাকাবাসী।

কুতুবদিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদৌস জানান, অন্যায়ের সাথে কোন আপোষ নেই। অপরাধী যত শক্তিশালীই হোক ছাড় দেয়া হবেনা। মাদক, জুয়া, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে সকলের সহযোগীতা কামনা করেছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.