চকরিয়ায় বসতবাড়ি ও ক্ষড়ের গাধায় আগুন প্রাণে হত্যার চেষ্টা, স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুট

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ছাইরাখালী গ্রামে পূর্বশত্রুতার জেরধরে এক বশতবাড়ি ও ক্ষড়ের গাধায় আগুন দিয়ে পরিবারের সদস্যদের প্রাণে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়েছে। অগ্নিকান্ডের সময় আগুন নেভানোর চেষ্টাকালে বাড়ির পেছনের দরজা ভেঙ্গে বাড়িতে ঢুকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে গেছে পূর্বশত্রুতায় বিরোধরত প্রতিপক্ষের লোকজন। পরে খবর পেয়ে চকরিয়ার ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্তনে আনে। ২৫ ফেব্রুয়ারী রাত অনুমানিক ১ টার দিকে ঘটেছে এ ঘটনা। এনিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারসহ স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের নুরুল আবছারের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করা হয়েছে।
অভিযোগে জানাগেছে, ছাইরাখালী গ্রামের নুরুল আবছার গংয়ের সাথে স্থানীয় একটি ভূমিদস্যু দখলবাজ গংয়ের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এরই সূত্রে ধারা বিগত সময়ে নুরুল আবছারের বসতবাড়ি ও ক্ষড়ের গাধায় অন্তত ৩বার অগ্নিকান্ড ঘটায়। এনিয়ে থানা ও আদালতে মামলাও হয়েছে। সর্বশেষ গত ২৪ ফেব্রুয়ারী জমি ক্রয়ের জন্য উদ্দীপন নামে একটি এনজিও সংস্থা থেকে ৩ লাখ টাকা ঋণ এবং বসতবাড়িতে রক্ষিত ও মজুদকৃত ৩ লাখ টাকার ধান বিক্রি করে মোট ৬লাখ টাকা বাড়িতে রক্ষিত করেন। ওই টাকার প্রতি লুলোপ দৃষ্টি পড়ে প্রতিপক্ষের। কৌশল হিসেবে বাড়ির ওঠানে বিশাল আয়তনে ক্ষড়ের গাধায় আগুন ধরিয়ে দিয়ে আগুন নেভানোর কাজে পরিবারের সদস্যদের ব্যস্ত রেখে বাড়ির পেছনের দরজা দিয়ে বাড়িতে ঢুকে রক্ষিত নগদ ৬লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায় আগুন লাগিয়ে দেওয়া প্রতিপক্ষের লোকজন। পরে বাড়ি থেকে আগুন দুরে রাখা এবং ক্ষড়ের স্তুপ থেকে আগুন নেভাতে পরিবারের সদস্যরাসহ স্থানীয়রা আগুন নেভানোর আপ্রাণ চেষ্টা চালায়। পরে খবর পেয়ে চকরিয়া ফায়ার সার্ভিস অগ্নিকান্ডস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনেন। ততক্ষণে বাড়ির ভেতর থেকে সম্পূর্ণ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে পালিয়ে যায় দূর্বৃত্তরা। এনিয়ে গৃহকত্রী মনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে থানায় লিখিত এজাহারটি দায়ের করেন।
চকরিয়া থানার ওসি মো: হাবিবুর রহমান জানিয়েছেন, ঘটনার বিষয়ে শুনেছি এবং লিখিত এজাহার পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য থানার একজন উপপরিদর্শকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সত্যতা পেলে অবশ্যই মামলা নেওয়া হবে।##

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.