নোটারী পাবলিক মূলে পবিত্র ইসলাম ধর্ম গ্রহণ

আমি মিফতাহুল আলম সামিয়া পূর্বনাম উর্মি রাণী দাশ, পিতা নিবারণ দাশ, মাতা পুস্প রাণী দাশ, সাং ডুমপাড়া, ইউনিয়ন- ডুলাহাজারা, উপজেলা-চকরিয়া, জেলা-কক্সবাজার। ধর্ম-ইসলাম (পূর্বের সনাতনী ধর্ম), জাতীয়তা-বাংলাদেশী। আমি একজন প্রাপ্ত বয়স্ক, শিক্ষিতা মহিলা হই। আমার বর্তমান ও ভবিষ্যত সম্পর্কে ভাল-মন্দ চিন্তা করিয়া সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা আমার আছে। আমি কলেজে অধ্যায়ন থাকাকালীন সময়ে সহপাঠি,মুসলিম ছাত্র-ছাত্রীদের সহীত চলাফেরা করার সময় তাহাদের আন্তরিকতা ও ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানের রীতি-নীতি এবং পবিত্র ইসলাম ধর্মে মহানুভতার প্রতি আকৃষ্ট হইয়া দৈনন্দিন পবিত্র ইসলাম ধর্ম সর্ম্পর্কে জানা ও বুঝার চেষ্টা করি। ফলে পবিত্র ইসলাম ধর্মের প্রতি অনুপ্রাণিত হইয়া মনে মনে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার ইচ্ছা পোষণ করিতেছিলাম। এমতাবস্থায় আমার মুসলিম সহপাঠিদের সহযোগিতায় হিন্দু ধর্ম (সনাতন) ত্যাগ পূর্বক জনৈক মুসলিম মাওলানা সাহেবের নিকট স্বাক্ষীদের উপস্থিতিতে বিগত ২০ ফেব্রুয়ারী’২০২০ইং তারিখে স্বেচ্ছায়, স্বজ্ঞানে এবং কাহারো বিনাপ্ররোচনায় পবিত্র কলেম পড়িয়া পবিত্র ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি এবং আমার পূর্বের উর্মি রাণী দাশের স্থলে মিফতাহুল আলম সামিয়া নাম রাখি। বিগত ২০ ফেব্রুয়ারী’২০ইং তারিখ হইতে আমি একজন নওমুসলিম মহিলা হিসেবে আমার পূর্ব নাম “উর্মি রাণী দাশ” স্থলে মিফতাহুল আলম সামিয়া হিসেবে সকল মহলে পরিচিত হইয়া আসিয়াছি। অদ্য হইতে আমার নামীয় বর্তমান ও পূর্ববর্তী সকল শিক্ষাগত সনদপত্র সমূহ ও দলিলাদির ভিত্তিতে এবং সকল স্থরে আমার পূর্ব উর্মি রাণী দাশের স্থলে মিফতাহুল আলম সামিয়া হিসেবে পঠিত ও উপস্থাতি হইবে। ভবিষ্যতের প্রয়োজনে ও সকল মহলের জ্ঞাতার্থে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ পূর্বক আমার পবিত্র ইসলাম ধর্ম গ্রহণ এবং আমার পূর্বনাম উর্মি রাণী দাশের স্থলে মিফতাহুল আলম সামিয়া নাম রাখা সর্ম্পর্কিত বিষয়টি অত্র নোটারী পাবলিকের কার্যালয়,কক্সবাজার এর এফিডেভিট নং ৬৩৬, তাং ২৫-০২-২০২০ইং মূলে ঘোষণা প্রদান করিলাম। উপরোক্ত করারে আমি স্বেচ্ছায়,স্বজ্ঞানে, সুস্থ মস্তিস্কে ও কাহারো বিনাপ্ররোচনায় অত্র হলফনামা সম্পাদন করিলাম।
ইতি-মিফতাহুল আলম সামিয়া (পূর্বের নামা উর্মি রাণী দাশ), ডুমপাড়া, ইউনিয়ন- ডুলাহাজারা, উপজেলা-চকরিয়া, জেলা-কক্সবাজার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.