চকরিয়ায় টাকা ধার দেয়ায় হামলা ও ছিনতাইয়ের শিকার পাওনাদার

চকরিয়ায় পাওনা টাকা চাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা ও ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছে পাওনাদার। এসময় ছিনিয়ে নিয়েছে নগদ টাকা, ল্যাপটপ ও মোবাইল সেট। ২৬ জানুয়ারী সকাল ১১টায় চকরিয়া পৌর সদরের চিরিংগা বাসষ্টেশনে ঘটেছে এ ঘটনা। এনিয়ে থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করেন ভূক্তভোগি, ছিনতাই ও হামলার শিকার চকরিয়া পৌরসভা ৮নং ওয়ার্ডের মুন্সিপাড়া এলাকার মৃত আলী আহমদের পুত্র শাহাদাত হোছাইন (৩০)। এতে বিবাদী করা হয়েছে; ষ্টেশন পাড়া এলাকার মৃত দেলোয়ার হোছেনের ছেলে মো: এরফানুল হক (৩৫), নুরুল আলমের ছেলে খায়রুল বশর (১৮), নুরুল ইসলাম হায়দার (২০) ও মৃত আবুল ফজলের ছেলে নুরুল আলম (৪২)সহ অজ্ঞাত ৬/৭জনকে।
অভিযোগে জানিয়েছেন, অভিযুক্ত এরফানুল হককে ২লাখ ৮৫ হাজার টাকা ধার দেন বাদী শাহাদাত হোসেন। তন্মধ্যে টাকা ফেরৎ দেওয়ার কথা বলে প্রথম দফায় ডাচ্ বাংলা লি: চকরিয়া শাখার অনুকূলে একটি ১ লক্ষ টাকা চেক প্রদান করেন। কিন্তু কিন্তু ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করতে গেলে অর্পযাপ্ত তহবিল বলে চেক ফেরৎ দেন। এরফানের কাছ থেকে বিষয় জানতে চাইলে অবশিষ্ট টাকাসহ একসাথে ফেরৎ দেওয়ার অজুহাত দেখান। সর্বশেষ ব্যাংক থেকে চেক ডিজঅনার করার চেষ্টা করলে টাকা ধার দাতা শাহাদাত চট্টগ্রাম শহরে কর্মস্থলে যাওয়ার পথে ২৬জানুয়ারী সকাল ১১টার দিকে গতিরোধ করে সন্ত্রাসী-ছিণতাইকারী বাহিনী নিয়ে হামলা চালান। এসময় ব্যাগ ভর্তি ব্যবহৃত ৬০ হাজার টাকা মূল্যের ল্যাপটপ, ২৫ হাজার টাকা মূল্যের এনড্রয়েড মোবাইল সেট ও ব্যাগে রক্ষিত নগদ ১লাখ ৮৫ হাজার টাকা বেধম মারধর করে ছিনিয়ে নেয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলআ স্থ্যা কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। তিনি প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে এদিন সন্ধ্যায় থানায় লিখিত এজাহার দায়ের করেন।
চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: হাবিবুর রহমান বলেন,লিখিত অভিযোগ পাওয়ার তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য থানার উপপরিদর্শক প্রিয়লাল ঘোষকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ঘটনা সত্য প্রমাণিত হলে মামলা গ্রহণসহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ##

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.