চকরিয়ায় বসতভীটা জবর দখলে নিতে হামলা, ১২দিনের সিজার অপারেশন রোগিসহ আহত-২

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় রিজার্ভ বনভূমিতে দীর্ঘকাল ধরে আশ্রয় নেওয়া ও স্থায়ী বসবাসরত বসতভীটা জবর দখলে নিতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট চালানো হয়েছে। হামলায় ১২দিনের সিজারিয়ান ডেলিভারী রোগিসহ দুই মহিলা গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার (২৫ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৬.৪৫টার দিকে উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মধ্যম বানিয়ারছড়া গ্রামে ঘটেছে এ ঘটনা।
অভিযোগে জানাগেছে, স্থানীয় মৃত আমির ছোবহানের পুত্র আবুল হোসেন গং পরিবার-পরিজন নিয়ে পৈত্রিকভাবে দীর্ঘদিন ধরে রিজার্ভ বনভূমিতে স্থায়ীভাবে বসবাস করে আসছেন। কিন্তু অসহায় আবুল হোসেন গংয়ে সামান্য বসতভীটার জমির প্রতি লুলোপ দৃষ্টি পড়ে একই এলাকার জাফর আলমের পুত্র ১৩ মামলার পলাতক আসামী মো: ইসমাইলের। সর্বশেষ বুধবার সন্ধ্যা ৬.৪৫টার দিকে অভিযুক্ত জাফর আলমের পুত্র মো: ইসমাইল ও তার স্ত্রী রাবেয়া বেগমের নেতৃত্বে ভাড়াটিয়া অজ্ঞাত আরো ৩/৪জন হাতে দা ছুরি, হাতুড়ি, কুড়াল নিয়ে বসতভীটার জমি জবর দখলে নিতে অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় আবুল হোসেনের স্ত্রী মালেকা বেগম (৪৫) ও তার বোন অর্থাৎ মো: সুমনের স্ত্রী রুজিনা আক্তার (২০)কে পিঠিয়ে গুরুতর জখম করে। তন্মধ্যে রুজিনা আক্তারের গত ১২দিন পূর্বে একটি সন্তান প্রশ্রবে সিজারিয়ান অপারেশন হয়। ফলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থার চরম অবনতি দেখে চট্টগ্রাম মেডিকেলে রেফার করেছেন। ঘটনার সময় অভিযুক্তরা বসতঘর ঘরে টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করেছে। অভিযুক্ত ইসমাইলের বিরুদ্ধে ডাকাতি, ফরেষ্ট এসল্ট, বনসহ অন্তত ১৩টি মামলা রয়েছে। গত ২দিন ধরে থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতারে বাড়িতে কয়েকবার অভিযান চালিয়েছে।
চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: হাবিবুর রহমান জানান, ঘটনার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।##

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.