চকরিয়ার সর্বজন শ্রদ্ধেয়ে এহেছানুল হক পীর ছাহেবের জানাজায় লাখ লাখ শোতাহত মুসল্লী

আবদুল মজিদ,চকরিয়া:
কক্সবাজার জেলার সর্বজন শ্রদ্ধেয় আলেম ও পীরে কামেল, চকরিয়া উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা এহছানুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা, হেফজখানা ও এতিমখানার প্রতিষ্ঠাতা হজরত আলহাজ্ব শাহ মাওলানা এহেছানুল হক (প্রকাশ ভেওলার পীর এহেছান সাহেব) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহির রাজিউন)। সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) সকাল ৮ টার দিকে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। পূর্ব ভেওলার এহেছান পীর সাহেবের মৃত্যুর খবরে ছড়িয়ে পড়লে সর্বত্রে শোকের ছায়া নেমে আসে। একজন বিশিষ্ট আলেম ও আধ্যাত্মিক সাধক হিসাবে এলাকায় তাঁর বেশ সুনাম ছিলো। এদিন বিকাল সাড়ে ৪ টায় পূর্ব বড় ভেওলা জি.এন.এ মিশনারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আলহাজ্ব মাওলানা এহসানুল হক পীর ছাহেবের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম নামাজে জানাজায় ইমামতি করেন মরহুম পীর ছাহেবের বড় ছেলে শাহজাদা মাওলানা এহেতেছামুল হক রাফে ও একই মাঠে ২য় নামাজে জানাজায় ইমামতি করেন মরহুম পীর ছাহেবের ভাগিনা আলহাজ মাওলানা দিদারুল ইসলাম। আলহাজ্ব মাওলানা এহসানুল হক পীর ছাহেব মৃত্যুকালে ১স্ত্রী, ২ছেলে ও ১মেয়ে, নাতি-নাতনীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী-ভক্ত,মুরিদান,শুভাকাংখি রেখে যান। মৃত্যুকালে তাহার বয়স হয়েছিল ৫৮বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দুরারোগ্য ব্যধিতে (কিডনী) রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সোমবার ভোর সকালে অবস্থার অবনতি হলে তাৎক্ষনিকভাবে চট্টগ্রাম নিয়ে যাওয়ার পথে পটিয়া রৌশনহাট পর্যন্ত পৌছলে এম্বুলেন্সের ভেতরেই মার যান। এদিকে অনুষ্ঠিত জানাজার নামাজে কক্সবাজার জেলাসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামের প্রত্যন্তাঞ্চল থেকে তাহার ভক্ত লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লী জানাজার মাঠ ও আশপাশ এলাকায় জানাজা শুরু হওয়ার এক ঘন্টা আগেই সমবেত হয়। কোথাও তীল পরিমাণ খালি জায়গা ছিল। স্থানীয়দের অভিমত জানাজার নামাজে অন্তত ৫ লাখের অধিক মুসল্লী অংশ নিয়ে প্রিয় হুজুর পীর ছাহেবকে চির বিদায় জানিয়েছে। চতুরদিকে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়েছে।
অনুষ্টিত জানাজার নামাজে লাখ লাখ মুসল্লীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া-পেকুয়া সাবেক এমপি মোহাম্মদ ইলিয়াছ, চট্টগ্রাম দারুল উলুমের মুহাদ্দিস মাওলানা মকছুদ আহমদ, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দীন চৌধুরী, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মো: হাবিবুর রহমান, সাবেক পৌর মেয়র নুরুল ইসলাম হায়দার, মাতামুহুরী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি চেয়ারম্যান আলহাজ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা, সাধারণ সম্পাদক ও সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এসএম জাহাংগীর আলম বুলবুল, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক ছুট্টু, চকরিয়া কলেজের অধ্যক্ষ একেএম গিয়াস উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আমিনুর রশিদ দুলাল, কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু, পূর্ববড়ভেওলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ারুল আরিফ দুলাল, সাহারবিল কামিল মাদরাসার সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা রুহুল কুদুছ আনোয়ারী আল আজহারী, মরহুমের বন্ধু পালাকাটা দাখিল মাদরাসার সুপার আলহাজ্ব মাওলানা নুরুল হোছাইন, মাওলানা শিব্বির আহমদ ওসমানী, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আবদুল মজিদ, সাধারণ সম্পাদক একেএম বেলাল উদ্দিন, চকরিয়া উপজেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা ছাবের আহমদ, মাওলানা মো: মোজাম্মেল হক, চকরিয়া মেডিকেল সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: হেদায়ত উল্লাহ, মাতামুহুরী থানা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম খলিল উল্লাহ চৌধুরী প্রমূখ।
এদিকে হজরত আলহাজ্ব শাহ মাওলানা এহেছানুল হক (প্রকাশ ভেওলার পীর এহেছান সাহেব) মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন সাবেক যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব সালাহ উদ্দিন আহমদ, সাবেক উপমন্ত্রী মর্যাদার জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সাবেক সাংসদ এএইচ সালাহ উদ্দিন মাহমুদ, চকরিয়া-পেকুয়া আসনের বর্তমান জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জাফর আলম এমএ, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল করিম, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুল করিম সাঈদী, চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরুদ্দিন মো: শিবলী নোমান, চকরিয়া উন্নয়ন ফোরাম চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আরিফুর রহমান চৌধুরী মানিক, চকরিয়া ইউনিক হাসপাতালের ম্যানেজিং ডিরেক্টর আখতার আহমদ বিএ(অনার্স)এমএ, চকরিয়া ইমাম সমিতি ও জমিয়াতুল মোদারেছিনের সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা রুহুল কুদুল আনোয়ারী,পৌরসভা সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা কফিল উদ্দিন ফারুক, চকরিয়া ওলামা ঐক্যপরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব মাওলানা সিরাজ উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা জামাল হোছাইন নুরী প্রমূখ।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.