চকরিয়ায় যৌন হেনস্থার আপোষরফা ২০ হাজার টাকায়! শীর্ষক প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

গত ১০ ডিসেম্বর দৈনিক আজকের কক্সবাজার পত্রিকায় ‍টক অব দ্যা চকরিয়া, চকরিয়ায় যৌন হেনস্থার আপোষরফা ২০ হাজার টাকায়! এবং বাংলাদেশ প্রতিদিনসহ বিভিন্ন পত্রিকায় ডাক্তারের হাতে যৌন হেনস্থার শিকার রোগি” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি আমার দৃষ্টি গোচর হয়েছে। সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ভিত্তিহীন কল্পনিক ও উদ্যোশ্য প্রণোদিত। সংবাদের সাথে বাস্তবতার কোন মিলনাই। এলাকার কিছু কুচক্রি মহল আমার প্রতিষ্ঠান ও আমার বিরুদ্ধে এসব মিথ্যাচার করেছে। আমি দীর্ঘদিন যাবৎ এলাকার দরিদ্র পরিবার থেকে শুরু করে সবশ্রেণি পেশার মানুষের মাঝে নামমাত্র মূলে দন্ত চিকিৎসা সহায়তা ও সেবা দিয়ে যাচ্ছি। কাকারা ইউনিয়নের পুলের ছড়া গ্রামের যে মহিলার কথা বলা হয়েছে, মূলত: তাকে দিয়ে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল। যা চকরিয়া থানার মাননীয় অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মহোদয় প্রাথমিক তদন্তে ঘটনা সাজানো ও মিথ্যা হিসেবে প্রমাণ পেয়েছেন। একইভাবে স্থানীয় চকরিয়া পৌরসভার সম্মানীত প্যানেল মেয়র ও ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিরি জনাব বশিরুল আইয়ুব সাহেব অবগত হয়েছেন। তিনিও স্থানীয় কাকারা ইউপি সদস্যকে নিয়ে বৈঠকে বসে মিথ্যা হিসেবে প্রমাণ পেয়েছেন। এছাড়াও আমার চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানে রোগিকে যৌন হেনস্থা করার মত কোন পরিবেশ নাই। ষ্টেশনের উপর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং চতুরপার্শ্বে সবসময় হাজার হাজার মানুষ চলাচল করছে। তাছাড়া ঘটনা দেখানো হয়েছে দিনদুপুর (বিকাল ৪টার দিকে)। এধরণের কোন ঘটনা হয়ে থাকলে স্থানীয় একজন লোক হলেও ঘটনাটি দেখতে পেতেন। এছাড়াও উল্লেখিত মহিলার স্বামীও আমার প্রতিষ্ঠানে ছিলেন। চিকিৎসা শেষে ওষুধ পত্র নিয়ে বাড়ি যাওয়ার সময় হলেও তার স্বামীকে এধরণের ঘটনা খুলে বলতে পারতেন, কিন্তু বাড়ি চলে যাওয়ার ৩ঘন্টা পর কেন এধরণের মিথ্যা ঘটনার পূণবৃত্তি করা হল। তা যেকেউ শুনেই অনুমান করতে পারবে, ঘটনাটি শতভাগ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও সাজানো। এরপরও বিজ্ঞ পুলিশ প্রশাসন, পৌর কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয়দের বিচার আমি নেওয়ার কথা বলেছি, এসব বিচারে আমাকে নির্দোষ প্রমাণিত করেছেন। ওই মহিলা থানায় লিখিত মুচলেখাও দিয়েছেন। তাই আমি উক্ত মিথ্যা সংবাদ নিয়ে প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য বিনীত আহবান জানাচ্ছি এবং সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
প্রতিবাদকারী- মো: আইয়ুব, ফুলতলা, ৩নং ওয়ার্ড, চকরিয়া পৌরসভা,কক্সবাজার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.