চকরিয়ায় প্রথম শ্রেণির ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ, থানায় মামলা

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় প্রথম শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ছাত্রীকে মাতামুহুরী নদীর তীরে মিষ্টি কুমড়া ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে হুমায়ুন (২৯) নামের এক যুবক। ধর্ষক হুমায়ুন পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের আনিস পাড়ার আবদুস শুক্কুরের ছেলে। ধর্ষিত ছাত্রীর পিতাও একজন প্রতিবন্ধী। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর চাচা বাদি হয়ে বুধবার (৪ ডিসেম্বর) রাতে চকরিয়া থানায় একটি মামলা (নং ৮/১৯,জিআর ৫৪২) দায়ের করেছেন। মামলায় হুমায়ুনকে ধর্ষক ও অজ্ঞাত ২ ব্যক্তিকে সহযোগী আসামি হিসেবে দেখানো হয়েছে। মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, ১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৭টায় ওই ছাত্রীকে মাতামুহুরী নদীর তীরে মিষ্টি কুমড়া ক্ষেতে নিয়ে অজ্ঞাত ২ ব্যক্তির সহযোগীতায় হুমায়ুন ধর্ষণ করে। ওই ছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে ধর্ষণে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়। স্থানীয় এলাকাবাসী ধর্ষণকারী হুমায়ুন ও তার সহযোগিদের গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী জানান।
চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান বলেন, ‘ঘটনার পর ওই মাদ্রাসা ছাত্রীকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ৪ ডিসেম্বর রাতে ভিকটিমের চাচা বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।’ তিনি সংঘঠিত ঘটনাটি অত্যন্ত দু:খজন বলে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Application to the Ministry of Information for registration.